26. সুরাহ আল শু ‘আরা(01-227)


ﺑِﺴﻢِ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺍﻟﺮَّﺣﻤٰﻦِ ﺍﻟﺮَّﺣﻴﻢِ – শুরু
করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি
দয়ালু
[1] ﻃﺴﻢ
[1] ত্বা, সীন, মীম।
[1] Tâ¬Sîn¬Mîm. [These letters are one of
the miracles of the Qur’ân, and none but
Allâh (Alone) knows their meanings.]
[2] ﺗِﻠﻚَ ﺀﺍﻳٰﺖُ ﺍﻟﻜِﺘٰﺐِ ﺍﻟﻤُﺒﻴﻦِ
[2] এগুলো সুস্পষ্ট কিতাবের আয়াত।
[2] These are the Verses of the manifest
Book [this Qur’ân, which was promised
by Allâh in the Taurât (Torah) and the
Injeel (Gospel), makes things clear].
[3] ﻟَﻌَﻠَّﻚَ ﺑٰﺨِﻊٌ ﻧَﻔﺴَﻚَ ﺃَﻟّﺎ
ﻳَﻜﻮﻧﻮﺍ ﻣُﺆﻣِﻨﻴﻦَ
[3] তারা বিশ্বাস করে না বলে আপনি হয়তো
মর্মব্যথায় আত্নঘাতী হবেন।
[3] It may be that you (O Muhammad
SAW) are going to kill yourself with
grief, that they do not become believers
[in your Risalah (Messengership) i.e. in
your Message of Islâmic Monotheism].
[4] ﺇِﻥ ﻧَﺸَﺄ ﻧُﻨَﺰِّﻝ ﻋَﻠَﻴﻬِﻢ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﺴَّﻤﺎﺀِ ﺀﺍﻳَﺔً ﻓَﻈَﻠَّﺖ ﺃَﻋﻨٰﻘُﻬُﻢ
ﻟَﻬﺎ ﺧٰﻀِﻌﻴﻦَ
[4] আমি যদি ইচ্ছা করি, তবে আকাশ থেকে
তাদের কাছে কোন নিদর্শন নাযিল করতে
পারি। অতঃপর তারা এর সামনে নত হয়ে যাবে।
[4] If We will, We could send down to
them from the heaven a sign, to which
they would bend their necks in humility.
[5] ﻭَﻣﺎ ﻳَﺄﺗﻴﻬِﻢ ﻣِﻦ ﺫِﻛﺮٍ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﺮَّﺣﻤٰﻦِ ﻣُﺤﺪَﺙٍ ﺇِﻟّﺎ ﻛﺎﻧﻮﺍ
ﻋَﻨﻪُ ﻣُﻌﺮِﺿﻴﻦَ
[5] যখনই তাদের কাছে রহমান এর কোন নতুন
উপদেশ আসে, তখনই তারা তা থেকে মুখ
ফিরিয়ে নেয়।
[5] And never comes there unto them a
Reminder as a recent revelation from
the Most Gracious (Allâh), but they turn
away therefrom.
[6] ﻓَﻘَﺪ ﻛَﺬَّﺑﻮﺍ ﻓَﺴَﻴَﺄﺗﻴﻬِﻢ
ﺃَﻧﺒٰﺆُﺍ۟ ﻣﺎ ﻛﺎﻧﻮﺍ ﺑِﻪِ
ﻳَﺴﺘَﻬﺰِﺀﻭﻥَ
[6] অতএব তারা তো মিথ্যারোপ করেছেই;
সুতরাং যে বিষয় নিয়ে তারা ঠাট্টা-বিদ্রুপ করত, তার
যথার্থ স্বরূপ শীঘ্রই তাদের কাছে
পৌছবে।
[6] So they have indeed denied (the truth
— this Qur’ân), then the news of what
they mocked at, will come to them.
[7] ﺃَﻭَﻟَﻢ ﻳَﺮَﻭﺍ ﺇِﻟَﻰ ﺍﻷَﺭﺽِ ﻛَﻢ
ﺃَﻧﺒَﺘﻨﺎ ﻓﻴﻬﺎ ﻣِﻦ ﻛُﻞِّ ﺯَﻭﺝٍ
ﻛَﺮﻳﻢٍ
[7] তারা কি ভুপৃষ্ঠের প্রতি দৃষ্টিপাত করে না?
আমি তাতে সর্বপ্রকার বিশেষ-বস্তু কত
উদগত করেছি।
[7] Do they not observe the earth,— how
much of every good kind We cause to
grow therein?
[8] ﺇِﻥَّ ﻓﻰ ﺫٰﻟِﻚَ ﻝَﺀﺍﻳَﺔً ۖ ﻭَﻣﺎ
ﻛﺎﻥَ ﺃَﻛﺜَﺮُﻫُﻢ ﻣُﺆﻣِﻨﻴﻦَ
[8] নিশ্চয় এতে নিদর্শন আছে, কিন্তু তাদের
অধিকাংশই বিশ্বাসী নয়।
[8] Verily, in this is an Ayâh (proof or
sign), yet most of them (polytheists,
pagans, who do not believe in
Resurrection) are not believers.
[9] ﻭَﺇِﻥَّ ﺭَﺑَّﻚَ ﻟَﻬُﻮَ ﺍﻟﻌَﺰﻳﺰُ
ﺍﻟﺮَّﺣﻴﻢُ
[9] আপনার পালনকর্তা তো পরাক্রমশালী পরম
দয়ালু।
[9] And verily, your Lord! He is truly the
All-Mighty, the Most Merciful.
[10] ﻭَﺇِﺫ ﻧﺎﺩﻯٰ ﺭَﺑُّﻚَ ﻣﻮﺳﻰٰ ﺃَﻥِ
ﺍﺋﺖِ ﺍﻟﻘَﻮﻡَ ﺍﻟﻈّٰﻠِﻤﻴﻦَ
[10] যখন আপনার পালনকর্তা মূসাকে ডেকে
বললেনঃ তুমি পাপিষ্ঠ সম্প্রদায়ের নিকট যাও;
[10] And (remember) when your Lord
called Mûsa (Moses) (saying): “Go to the
people who are Zâlimûn (polytheists and
wrong-doing),—
[11] ﻗَﻮﻡَ ﻓِﺮﻋَﻮﻥَ ۚ ﺃَﻻ ﻳَﺘَّﻘﻮﻥَ
[11] ফেরাউনের সম্প্রদায়ের নিকট; তারা কি
ভয় করে না?
[11] The people of Fir’aun (Pharaoh).
Will they not fear Allâh and become
righteous?”
[12] ﻗﺎﻝَ ﺭَﺏِّ ﺇِﻧّﻰ ﺃَﺧﺎﻑُ ﺃَﻥ
ﻳُﻜَﺬِّﺑﻮﻥِ
[12] সে বলল, হে আমার পালনকর্তা, আমার
আশংকা হচ্ছে যে, তারা আমাকে মিথ্যাবাদী
বলে দেবে।
[12] He said: “My Lord! Verily, I fear
that they will belie me,
[13] ﻭَﻳَﻀﻴﻖُ ﺻَﺪﺭﻯ ﻭَﻻ
ﻳَﻨﻄَﻠِﻖُ ﻟِﺴﺎﻧﻰ ﻓَﺄَﺭﺳِﻞ ﺇِﻟﻰٰ
ﻫٰﺮﻭﻥَ
[13] এবং আমার মন হতবল হয়ে পড়ে এবং
আমার জিহবা অচল হয়ে যায়। সুতরাং হারুনের
কাছে বার্তা প্রেরণ করুন।
[13] “And my breast straitens, and my
tongue expresses not well. So send for
Hârûn (Aaron) (to come along with me).
[14] ﻭَﻟَﻬُﻢ ﻋَﻠَﻰَّ ﺫَﻧﺐٌ ﻓَﺄَﺧﺎﻑُ
ﺃَﻥ ﻳَﻘﺘُﻠﻮﻥِ
[14] আমার বিরুদ্ধে তাদের অভিযোগ আছে।
অতএব আমি আশংকা করি যে, তারা আমাকে হত্যা
করবে।
[14] “And they have a charge of crime
against me, and I fear they will kill me.”
[15] ﻗﺎﻝَ ﻛَﻠّﺎ ۖ ﻓَﺎﺫﻫَﺒﺎ ﺑِـٔﺎﻳٰﺘِﻨﺎ ۖ
ﺇِﻧّﺎ ﻣَﻌَﻜُﻢ ﻣُﺴﺘَﻤِﻌﻮﻥَ
[15] আল্লাহ বলেন, কখনই নয় তোমরা
উভয়ে যাও আমার নিদর্শনাবলী নিয়ে। আমি
তোমাদের সাথে থেকে শোনব।
[15] (Allâh) said: “Nay! Go you both with
Our Signs. Verily! We shall be with you,
listening.
[16] ﻓَﺄﺗِﻴﺎ ﻓِﺮﻋَﻮﻥَ ﻓَﻘﻮﻻ ﺇِﻧّﺎ
ﺭَﺳﻮﻝُ ﺭَﺏِّ ﺍﻟﻌٰﻠَﻤﻴﻦَ
[16] অতএব তোমরা ফেরআউনের কাছে
যাও এবং বল, আমরা বিশ্বজগতের পালনকর্তার
রসূল।
[16] “And go both of you to Fir’aun
(Pharaoh), and say: ‘We are the
Messengers of the Lord of the ‘Alamîn
(mankind, jinn and all that exists),
[17] ﺃَﻥ ﺃَﺭﺳِﻞ ﻣَﻌَﻨﺎ ﺑَﻨﻰ
ﺇِﺳﺮٰﺀﻳﻞَ
[17] যাতে তুমি বনী-ইসরাঈলকে আমাদের
সাথে যেতে দাও।
[17] “So allow the Children of Israel to go
with us.’ ”
[18] ﻗﺎﻝَ ﺃَﻟَﻢ ﻧُﺮَﺑِّﻚَ ﻓﻴﻨﺎ ﻭَﻟﻴﺪًﺍ
ﻭَﻟَﺒِﺜﺖَ ﻓﻴﻨﺎ ﻣِﻦ ﻋُﻤُﺮِﻙَ
ﺳِﻨﻴﻦَ
[18] ফেরাউন বলল, আমরা কি তোমাকে শিশু
অবস্থায় আমাদের মধ্যে লালন-পালন করিনি?
এবং তুমি আমাদের মধ্যে জীবনের বহু
বছর কাটিয়েছ।
[18] [Fir’aun (Pharaoh)] said [to Mûsa
(Moses)]: “Did we not bring you up
among us as a child? And you did dwell
many years of your life with us.
[19] ﻭَﻓَﻌَﻠﺖَ ﻓَﻌﻠَﺘَﻚَ ﺍﻟَّﺘﻰ
ﻓَﻌَﻠﺖَ ﻭَﺃَﻧﺖَ ﻣِﻦَ ﺍﻟﻜٰﻔِﺮﻳﻦَ
[19] তুমি সেই-তোমরা অপরাধ যা করবার
করেছ। তুমি হলে কৃতঘ্ন।
[19] “And you did your deed, which you
did (i.e. the crime of killing a man). And
you one of the ingrates.”
[20] ﻗﺎﻝَ ﻓَﻌَﻠﺘُﻬﺎ ﺇِﺫًﺍ ﻭَﺃَﻧﺎ۠ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﻀّﺎﻟّﻴﻦَ
[20] মূসা বলল, আমি সে অপরাধ তখন করেছি,
যখন আমি ভ্রান্ত ছিলাম।
[20] Mûsa (Moses) said: “I did it then,
when I was an ignorant (as regards my
Lord and His Message).
[21] ﻓَﻔَﺮَﺭﺕُ ﻣِﻨﻜُﻢ ﻟَﻤّﺎ ﺧِﻔﺘُﻜُﻢ
ﻓَﻮَﻫَﺐَ ﻟﻰ ﺭَﺑّﻰ ﺣُﻜﻤًﺎ
ﻭَﺟَﻌَﻠَﻨﻰ ﻣِﻦَ ﺍﻟﻤُﺮﺳَﻠﻴﻦَ
[21] অতঃপর আমি ভীত হয়ে তোমাদের কাছ
থেকে পলায়ন করলাম। এরপর আমার
পালনকর্তা আমাকে প্রজ্ঞা দান করেছেন
এবং আমাকে পয়গম্বর করেছেন।
[21] “So I fled from you when I feared
you. But my Lord has granted me Hukm
(i.e. religious knowledge, right
judgement of the affairs and
Prophethood), and appointed me one of
the Messengers.
[22] ﻭَﺗِﻠﻚَ ﻧِﻌﻤَﺔٌ ﺗَﻤُﻨُّﻬﺎ ﻋَﻠَﻰَّ
ﺃَﻥ ﻋَﺒَّﺪﺕَ ﺑَﻨﻰ ﺇِﺳﺮٰﺀﻳﻞَ
[22] আমার প্রতি তোমার যে অনুগ্রহের কথা
বলছ, তা এই যে, তুমি বনী-ইসলাঈলকে
গোলাম বানিয়ে রেখেছ।
[22] “And this is the past favour with
which you reproach me, that you have
enslaved the Children of Israel.”
[23] ﻗﺎﻝَ ﻓِﺮﻋَﻮﻥُ ﻭَﻣﺎ ﺭَﺏُّ
ﺍﻟﻌٰﻠَﻤﻴﻦَ
[23] ফেরাউন বলল, বিশ্বজগতের পালনকর্তা
আবার কি?
[23] [Fir’aun (Pharaoh)] said: “And what
is the Lord of the ‘Alamîn (mankind, jinn
and all that exists)?”
[24] ﻗﺎﻝَ ﺭَﺏُّ ﺍﻟﺴَّﻤٰﻮٰﺕِ
ﻭَﺍﻷَﺭﺽِ ﻭَﻣﺎ ﺑَﻴﻨَﻬُﻤﺎ ۖ ﺇِﻥ
ﻛُﻨﺘُﻢ ﻣﻮﻗِﻨﻴﻦَ
[24] মূসা বলল, তিনি নভোমন্ডল, ভূমন্ডল ও
এতদুভয়ের মধ্যবর্তী সবকিছুর পালনকর্তা
যদি তোমরা বিশ্বাসী হও।
[24] [Mûsa (Moses)] said: “The Lord of
the heavens and the earth, and all that is
between them, if you seek to be
convinced with certainty.”
[25] ﻗﺎﻝَ ﻟِﻤَﻦ ﺣَﻮﻟَﻪُ ﺃَﻻ
ﺗَﺴﺘَﻤِﻌﻮﻥَ
[25] ফেরাউন তার পরিষদবর্গকে বলল,
তোমরা কি শুনছ না?
[25] [Fir’aun (Pharaoh)] said to those
around: “Do you not hear (what he
says)?”
[26] ﻗﺎﻝَ ﺭَﺑُّﻜُﻢ ﻭَﺭَﺏُّ ﺀﺍﺑﺎﺋِﻜُﻢُ
ﺍﻷَﻭَّﻟﻴﻦَ
[26] মূসা বলল, তিনি তোমাদের পালনকর্তা এবং
তোমাদের পূর্ববর্তীদেরও পালনকর্তা।
[26] [Mûsa (Moses)] said: “Your Lord and
the Lord of your ancient fathers!”
[27] ﻗﺎﻝَ ﺇِﻥَّ ﺭَﺳﻮﻟَﻜُﻢُ ﺍﻟَّﺬﻯ
ﺃُﺭﺳِﻞَ ﺇِﻟَﻴﻜُﻢ ﻟَﻤَﺠﻨﻮﻥٌ
[27] ফেরাউন বলল, তোমাদের প্রতি
প্রেরিত তোমাদের রসূলটি নিশ্চয়ই বদ্ধ
পাগল।
[27] [Fir’aun (Pharaoh)] said: “Verily,
your Messenger who has been sent to
you is a madman!”
[28] ﻗﺎﻝَ ﺭَﺏُّ ﺍﻟﻤَﺸﺮِﻕِ
ﻭَﺍﻟﻤَﻐﺮِﺏِ ﻭَﻣﺎ ﺑَﻴﻨَﻬُﻤﺎ ۖ ﺇِﻥ
ﻛُﻨﺘُﻢ ﺗَﻌﻘِﻠﻮﻥَ
[28] মূসা বলল, তিনি পূর্ব, পশ্চিম ও এতদুভয়ের
মধ্যবর্তী সব কিছুর পালনকর্তা, যদি তোমরা
বোঝ।
[28] [Mûsa (Moses)] said: “Lord of the
east and the west, and all that is between
them, if you did but understand!”
[29] ﻗﺎﻝَ ﻟَﺌِﻦِ ﺍﺗَّﺨَﺬﺕَ ﺇِﻟٰﻬًﺎ
ﻏَﻴﺮﻯ ﻟَﺄَﺟﻌَﻠَﻨَّﻚَ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﻤَﺴﺠﻮﻧﻴﻦَ
[29] ফেরাউন বলল, তুমি যদি আমার পরিবর্তে
অন্যকে উপাস্যরূপে গ্রহণ কর তবে আমি
অবশ্যই তোমাকে কারাগারে নিক্ষেপ করব।
[29] [Fir’aun (Pharaoh)] said: “If you
choose an ilâh (god) other than me, I will
certainly put you among the prisoners.”
[30] ﻗﺎﻝَ ﺃَﻭَﻟَﻮ ﺟِﺌﺘُﻚَ ﺑِﺸَﻲﺀٍ
ﻣُﺒﻴﻦٍ
[30] মূসা বলল, আমি তোমার কাছে কোন
স্পষ্ট বিষয় নিয়ে আগমন করলেও কি?
[30] [Mûsa (Moses)] said: “Even if I bring
you something manifest (and
convincing)?”
[31] ﻗﺎﻝَ ﻓَﺄﺕِ ﺑِﻪِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺖَ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﺼّٰﺪِﻗﻴﻦَ
[31] ফেরাউন বলল, তুমি সত্যবাদী হলে তা
উপস্থিত কর।
[31] [Fir’aun (Pharaoh)] said: “Bring it
forth then, if you are of the truthful!”
[32] ﻓَﺄَﻟﻘﻰٰ ﻋَﺼﺎﻩُ ﻓَﺈِﺫﺍ ﻫِﻰَ
ﺛُﻌﺒﺎﻥٌ ﻣُﺒﻴﻦٌ
[32] অতঃপর তিনি লাঠি নিক্ষেপ করলে
মুহূর্তের মধ্যে তা সুস্পষ্ট অজগর হয়ে
গেল।
[32] So [Mûsa (Moses)] threw his stick,
and behold, it was a serpent, manifest
[33] ﻭَﻧَﺰَﻉَ ﻳَﺪَﻩُ ﻓَﺈِﺫﺍ ﻫِﻰَ
ﺑَﻴﻀﺎﺀُ ﻟِﻠﻨّٰﻈِﺮﻳﻦَ
[33] আর তিনি তার হাত বের করলেন,
তৎক্ষণাৎ তা দর্শকদের কাছে সুশুভ্র প্রতিভাত
হলো।
[33] And he drew out his hand, and
behold, it was white to all beholders!
[34] ﻗﺎﻝَ ﻟِﻠﻤَﻠَﺈِ ﺣَﻮﻟَﻪُ ﺇِﻥَّ ﻫٰﺬﺍ
ﻟَﺴٰﺤِﺮٌ ﻋَﻠﻴﻢٌ
[34] ফেরাউন তার পরিষদবর্গকে বলল, নিশ্চয়
এ একজন সুদক্ষ জাদুকর।
[34] [Fir’aun (Pharaoh)] said to the chiefs
around him: “Verily! This is indeed a
well-versed sorcerer.
[35] ﻳُﺮﻳﺪُ ﺃَﻥ ﻳُﺨﺮِﺟَﻜُﻢ ﻣِﻦ
ﺃَﺭﺿِﻜُﻢ ﺑِﺴِﺤﺮِﻩِ ﻓَﻤﺎﺫﺍ
ﺗَﺄﻣُﺮﻭﻥَ
[35] সে তার জাদু বলে তোমাদেরকে
তোমাদের দেশ থেকে বহিস্কার করতে
চায়। অতএব তোমাদের মত কি?
[35] “He wants to drive you out of your
land by his sorcery: what is it then that
you command?”
[36] ﻗﺎﻟﻮﺍ ﺃَﺭﺟِﻪ ﻭَﺃَﺧﺎﻩُ
ﻭَﺍﺑﻌَﺚ ﻓِﻰ ﺍﻟﻤَﺪﺍﺋِﻦِ ﺣٰﺸِﺮﻳﻦَ
[36] তারা বলল, তাকে ও তার ভাইকে কিছু
অবকাশ দিন এবং শহরে শহরে ঘোষক
প্রেরণ করুন।
[36] They said: “Put him off and his
brother (for a while), and send callers to
the cities;
[37] ﻳَﺄﺗﻮﻙَ ﺑِﻜُﻞِّ ﺳَﺤّﺎﺭٍ ﻋَﻠﻴﻢٍ
[37] তারা যেন আপনার কাছে প্রত্যেকটি
দক্ষ জাদুকর কে উপস্থিত করে।
[37] “To bring up to you every well-
versed sorcerer.”
[38] ﻓَﺠُﻤِﻊَ ﺍﻟﺴَّﺤَﺮَﺓُ ﻟِﻤﻴﻘٰﺖِ
ﻳَﻮﻡٍ ﻣَﻌﻠﻮﻡٍ
[38] অতঃপর এক নির্দিষ্ট দিনে
জাদুকরদেরকে একত্রিত করা হল।
[38] So the sorcerers were assembled at a
fixed time on a day appointed
[39] ﻭَﻗﻴﻞَ ﻟِﻠﻨّﺎﺱِ ﻫَﻞ ﺃَﻧﺘُﻢ
ﻣُﺠﺘَﻤِﻌﻮﻥَ
[39] এবং জনগণের মধ্যে ঘোষণা করা হল,
তোমরাও সমবেত হও।
[39] And it was said to the people: “Are
you (too) going to assemble?
[40] ﻟَﻌَﻠَّﻨﺎ ﻧَﺘَّﺒِﻊُ ﺍﻟﺴَّﺤَﺮَﺓَ ﺇِﻥ
ﻛﺎﻧﻮﺍ ﻫُﻢُ ﺍﻟﻐٰﻠِﺒﻴﻦَ
[40] যাতে আমরা জাদুকরদের অনুসরণ
করতে পারি-যদি তারাই বিজয়ী হয়।
[40] “That we may follow the sorcerers
[who were on Fir’aun’s (Pharaoh)
religion of disbelief] if they are the
winners.”
[41] ﻓَﻠَﻤّﺎ ﺟﺎﺀَ ﺍﻟﺴَّﺤَﺮَﺓُ ﻗﺎﻟﻮﺍ
ﻟِﻔِﺮﻋَﻮﻥَ ﺃَﺋِﻦَّ ﻟَﻨﺎ ﻟَﺄَﺟﺮًﺍ ﺇِﻥ ﻛُﻨّﺎ
ﻧَﺤﻦُ ﺍﻟﻐٰﻠِﺒﻴﻦَ
[41] যখন যাদুকররা আগমণ করল, তখন
ফেরআউনকে বলল, যদি আমরা বিজয়ী হই,
তবে আমরা পুরস্কার পাব তো?
[41] So when the sorcerers arrived, they
said to Fir’aun (Pharaoh): “Will there
surely be a reward for us if we are the
winners?”
[42] ﻗﺎﻝَ ﻧَﻌَﻢ ﻭَﺇِﻧَّﻜُﻢ ﺇِﺫًﺍ ﻟَﻤِﻦَ
ﺍﻟﻤُﻘَﺮَّﺑﻴﻦَ
[42] ফেরাউন বলল, হঁ্যা এবং তখন তোমরা
আমার নৈকট্যশীলদের অন্তর্ভুক্ত হবে।
[42] He said: “Yes, and you shall then
verily be of those brought near (to
myself).”
[43] ﻗﺎﻝَ ﻟَﻬُﻢ ﻣﻮﺳﻰٰ ﺃَﻟﻘﻮﺍ ﻣﺎ
ﺃَﻧﺘُﻢ ﻣُﻠﻘﻮﻥَ
[43] মূসা (আঃ) তাদেরকে বললেন, নিক্ষেপ
কর তোমরা যা নিক্ষেপ করবে।
[43] Mûsa (Moses) said to them: “Throw
what you are going to throw!”
[44] ﻓَﺄَﻟﻘَﻮﺍ ﺣِﺒﺎﻟَﻬُﻢ ﻭَﻋِﺼِﻴَّﻬُﻢ
ﻭَﻗﺎﻟﻮﺍ ﺑِﻌِﺰَّﺓِ ﻓِﺮﻋَﻮﻥَ ﺇِﻧّﺎ
ﻟَﻨَﺤﻦُ ﺍﻟﻐٰﻠِﺒﻮﻥَ
[44] অতঃপর তারা তাদের রশি ও লাঠি নিক্ষেপ
করল এবং বলল, ফেরাউনের ইযযতের কসম,
আমরাই বিজয়ী হব।
[44] So they threw their ropes and their
sticks, and said: “By the might of Fir’aun
(Pharaoh), it is we who will certainly
win!”
[45] ﻓَﺄَﻟﻘﻰٰ ﻣﻮﺳﻰٰ ﻋَﺼﺎﻩُ
ﻓَﺈِﺫﺍ ﻫِﻰَ ﺗَﻠﻘَﻒُ ﻣﺎ ﻳَﺄﻓِﻜﻮﻥَ
[45] অতঃপর মূসা তাঁর লাঠি নিক্ষেপ করল, হঠাৎ তা
তাদের অলীক কীর্তিগুলোকে গ্রাস
করতে লাগল।
[45] Then Mûsa (Moses) threw his stick,
and behold, it swallowed up all that they
falsely showed!
[46] ﻓَﺄُﻟﻘِﻰَ ﺍﻟﺴَّﺤَﺮَﺓُ ﺳٰﺠِﺪﻳﻦَ
[46] তখন জাদুকররা সেজদায় নত হয়ে গেল।
[46] And the sorcerers fell down
prostrate.
[47] ﻗﺎﻟﻮﺍ ﺀﺍﻣَﻨّﺎ ﺑِﺮَﺏِّ ﺍﻟﻌٰﻠَﻤﻴﻦَ
[47] তারা বলল, আমরা রাব্বুল আলামীনের
প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করলাম।
[47] Saying: “We believe in the Lord of
the ‘Alamîn (mankind, jinn and all that
exists).
[48] ﺭَﺏِّ ﻣﻮﺳﻰٰ ﻭَﻫٰﺮﻭﻥَ
[48] যিনি মূসা ও হারুনের রব।
[48] “The Lord of Mûsa (Moses) and
Hârûn (Aaron).”
[49] ﻗﺎﻝَ ﺀﺍﻣَﻨﺘُﻢ ﻟَﻪُ ﻗَﺒﻞَ ﺃَﻥ
ﺀﺍﺫَﻥَ ﻟَﻜُﻢ ۖ ﺇِﻧَّﻪُ ﻟَﻜَﺒﻴﺮُﻛُﻢُ
ﺍﻟَّﺬﻯ ﻋَﻠَّﻤَﻜُﻢُ ﺍﻟﺴِّﺤﺮَ ﻓَﻠَﺴَﻮﻑَ
ﺗَﻌﻠَﻤﻮﻥَ ۚ ﻟَﺄُﻗَﻄِّﻌَﻦَّ ﺃَﻳﺪِﻳَﻜُﻢ
ﻭَﺃَﺭﺟُﻠَﻜُﻢ ﻣِﻦ ﺧِﻠٰﻒٍ
ﻭَﻟَﺄُﺻَﻠِّﺒَﻨَّﻜُﻢ ﺃَﺟﻤَﻌﻴﻦَ
[49] ফেরাউন বলল, আমার অনুমতি দানের
পূর্বেই তোমরা কি তাকে মেনে নিলে?
নিশ্চয় সে তোমাদের প্রধান, যে
তোমাদেরকে জাদু শিক্ষা দিয়েছে।
শীঘ্রই তোমরা পরিণাম জানতে পারবে। আমি
অবশ্যই তোমাদের হাত ও পা বিপরীত দিক
থেকে কর্তন করব। এবং তোমাদের
সবাইকে শূলে চড়াব।
[49] [Fir’aun (Pharaoh)] said: “You have
believed in him before I give you leave.
Surely, he indeed is your chief, who has
taught you magic! So verily, you shall
come to know. Verily, I will cut off your
hands and your feet on opposite sides,
and I will crucify you all.”
[50] ﻗﺎﻟﻮﺍ ﻻ ﺿَﻴﺮَ ۖ ﺇِﻧّﺎ ﺇِﻟﻰٰ
ﺭَﺑِّﻨﺎ ﻣُﻨﻘَﻠِﺒﻮﻥَ
[50] তারা বলল, কোন ক্ষতি নেই। আমরা
আমাদের পালনকর্তার কাছে প্রত্যাবর্তন
করব।
[50] They said: “No harm! Surely, to our
Lord (Allâh) we are to return;
[51] ﺇِﻧّﺎ ﻧَﻄﻤَﻊُ ﺃَﻥ ﻳَﻐﻔِﺮَ ﻟَﻨﺎ ﺭَﺑُّﻨﺎ
ﺧَﻄٰﻴٰﻨﺎ ﺃَﻥ ﻛُﻨّﺎ ﺃَﻭَّﻝَ
ﺍﻟﻤُﺆﻣِﻨﻴﻦَ
[51] আমরা আশা করি, আমাদের পালনকর্তা
আমাদের ক্রটি-বিচ্যুতি মার্জনা করবেন। কারণ,
আমরা বিশ্বাস স্থাপনকারীদের মধ্যে
অগ্রণী।
[51] “Verily! We really hope that our
Lord will forgive us our sins, as we are
the first of the believers [in Mûsa
(Moses) and in the Monotheism which he
has brought from Allâh].”
[52] ۞ ﻭَﺃَﻭﺣَﻴﻨﺎ ﺇِﻟﻰٰ ﻣﻮﺳﻰٰ
ﺃَﻥ ﺃَﺳﺮِ ﺑِﻌِﺒﺎﺩﻯ ﺇِﻧَّﻜُﻢ
ﻣُﺘَّﺒَﻌﻮﻥَ
[52] আমি মূসাকে আদেশ করলাম যে, আমার
বান্দাদেরকে নিয়ে রাত্রিযোগে বের
হয়ে যাও, নিশ্চয় তোমাদের পশ্চাদ্ধাবন করা
হবে।
[52] And We revealed to Mûsa (Moses),
saying: “Depart by night with My slaves ,
verily, you will be pursued.”
[53] ﻓَﺄَﺭﺳَﻞَ ﻓِﺮﻋَﻮﻥُ ﻓِﻰ
ﺍﻟﻤَﺪﺍﺋِﻦِ ﺣٰﺸِﺮﻳﻦَ
[53] অতঃপর ফেরাউন শহরে শহরে
সংগ্রাহকদেরকে প্রেরণ করল,
[53] Then Fir’aun (Pharaoh) sent callers
to (all) the cities.
[54] ﺇِﻥَّ ﻫٰﺆُﻻﺀِ ﻟَﺸِﺮﺫِﻣَﺔٌ
ﻗَﻠﻴﻠﻮﻥَ
[54] নিশ্চয় এরা (বনী-ইসরাঈলরা) ক্ষুদ্র একটি
দল।
[54] (Saying): “Verily! these indeed are
but a small band.
[55] ﻭَﺇِﻧَّﻬُﻢ ﻟَﻨﺎ ﻟَﻐﺎﺋِﻈﻮﻥَ
[55] এবং তারা আমাদের ক্রোধের উদ্রেক
করেছে।
[55] “And verily, they have done what
has enraged us;
[56] ﻭَﺇِﻧّﺎ ﻟَﺠَﻤﻴﻊٌ ﺣٰﺬِﺭﻭﻥَ
[56] এবং আমরা সবাই সদা শংকিত।
[56] “But we are host all assembled,
amply fore-warned.”
[57] ﻓَﺄَﺧﺮَﺟﻨٰﻬُﻢ ﻣِﻦ ﺟَﻨّٰﺖٍ
ﻭَﻋُﻴﻮﻥٍ
[57] অতঃপর আমি ফেরআউনের দলকে
তাদের বাগ-বাগিচা ও ঝর্ণাসমূহ থেকে বহিষ্কার
করলাম।
[57] So, We expelled them from gardens
and springs,
[58] ﻭَﻛُﻨﻮﺯٍ ﻭَﻣَﻘﺎﻡٍ ﻛَﺮﻳﻢٍ
[58] এবং ধন-ভান্ডার ও মনোরম স্থানসমূহ
থেকে।
[58] Treasures, and every kind of
honourable place.
[59] ﻛَﺬٰﻟِﻚَ ﻭَﺃَﻭﺭَﺛﻨٰﻬﺎ ﺑَﻨﻰ
ﺇِﺳﺮٰﺀﻳﻞَ
[59] এরূপই হয়েছিল এবং বনী-ইসলাঈলকে
করে দিলাম এসবের মালিক।
[59] Thus [We turned them (Pharaoh’s
people) out] and We caused the Children
of Israel to inherit them.
[60] ﻓَﺄَﺗﺒَﻌﻮﻫُﻢ ﻣُﺸﺮِﻗﻴﻦَ
[60] অতঃপর সুর্যোদয়ের সময় তারা তাদের
পশ্চাদ্ধাবন করল।
[60] So they pursued them at sunrise.
[61] ﻓَﻠَﻤّﺎ ﺗَﺮٰﺀَﺍ ﺍﻟﺠَﻤﻌﺎﻥِ ﻗﺎﻝَ
ﺃَﺻﺤٰﺐُ ﻣﻮﺳﻰٰ ﺇِﻧّﺎ ﻟَﻤُﺪﺭَﻛﻮﻥَ
[61] যখন উভয় দল পরস্পরকে দেখল, তখন
মূসার সঙ্গীরা বলল, আমরা যে ধরা পড়ে
গেলাম।
[61] And when the two hosts saw each
other, the companions of Mûsa (Moses)
said: “We are sure to be overtaken.”
[62] ﻗﺎﻝَ ﻛَﻠّﺎ ۖ ﺇِﻥَّ ﻣَﻌِﻰَ ﺭَﺑّﻰ
ﺳَﻴَﻬﺪﻳﻦِ
[62] মূসা বলল, কখনই নয়, আমার সাথে
আছেন আমার পালনকর্তা। তিনি আমাকে পথ
বলে দেবেন।
[62] [Mûsa (Moses)] said: “Nay, verily!
With me is my Lord, He will guide me.”
[63] ﻓَﺄَﻭﺣَﻴﻨﺎ ﺇِﻟﻰٰ ﻣﻮﺳﻰٰ ﺃَﻥِ
ﺍﺿﺮِﺏ ﺑِﻌَﺼﺎﻙَ ﺍﻟﺒَﺤﺮَ ۖ
ﻓَﺎﻧﻔَﻠَﻖَ ﻓَﻜﺎﻥَ ﻛُﻞُّ ﻓِﺮﻕٍ
ﻛَﺎﻟﻄَّﻮﺩِ ﺍﻟﻌَﻈﻴﻢِ
[63] অতঃপর আমি মূসাকে আদেশ করলাম,
তোমার লাঠি দ্বারা সমূদ্রকে আঘাত কর। ফলে,
তা বিদীর্ণ হয়ে গেল এবং প্রত্যেক ভাগ
বিশাল পর্বতসদৃশ হয়ে গেল।
[63] Then We revealed to Mûsa (Moses)
(saying): “Strike the sea with your stick.”
And it parted, and each separate part (of
that sea water) became like the huge
mountain.
[64] ﻭَﺃَﺯﻟَﻔﻨﺎ ﺛَﻢَّ ﺍﻝﺀﺍﺧَﺮﻳﻦَ
[64] আমি সেথায় অপর দলকে পৌঁছিয়ে দিলাম।
[64] Then We brought near the others
[Fir’aun’s (Pharaoh) party] to that place.
[65] ﻭَﺃَﻧﺠَﻴﻨﺎ ﻣﻮﺳﻰٰ ﻭَﻣَﻦ
ﻣَﻌَﻪُ ﺃَﺟﻤَﻌﻴﻦَ
[65] এবং মূসা ও তাঁর সংগীদের সবাইকে
বাঁচিয়ে দিলাম।
[65] And We saved Mûsa (Moses) and all
those with him.
[66] ﺛُﻢَّ ﺃَﻏﺮَﻗﻨَﺎ ﺍﻝﺀﺍﺧَﺮﻳﻦَ
[66] অতঃপর অপর দলটিকে নিমজ্জত কললাম।
[66] Then We drowned the others.
[67] ﺇِﻥَّ ﻓﻰ ﺫٰﻟِﻚَ ﻝَﺀﺍﻳَﺔً ۖ ﻭَﻣﺎ
ﻛﺎﻥَ ﺃَﻛﺜَﺮُﻫُﻢ ﻣُﺆﻣِﻨﻴﻦَ
[67] নিশ্চয় এতে একটি নিদর্শন আছে এবং
তাদের অধিকাংশই বিশ্বাসী ছিল না।
[67] Verily! In this is indeed a sign (or a
proof), yet most of them are not
believers.
[68] ﻭَﺇِﻥَّ ﺭَﺑَّﻚَ ﻟَﻬُﻮَ ﺍﻟﻌَﺰﻳﺰُ
ﺍﻟﺮَّﺣﻴﻢُ
[68] আপনার পালনকর্তা অবশ্যই পরাক্রমশালী,
পরম দয়ালু।
[68] And verily, your Lord! He is truly
the All-Mighty, the Most Merciful.
[69] ﻭَﺍﺗﻞُ ﻋَﻠَﻴﻬِﻢ ﻧَﺒَﺄَ ﺇِﺑﺮٰﻫﻴﻢَ
[69] আর তাদেরকে ইব্রাহীমের বৃত্তান্ত
শুনিয়ে দিন।
[69] And recite to them the story of
Ibrâhim (Abraham).
[70] ﺇِﺫ ﻗﺎﻝَ ﻟِﺄَﺑﻴﻪِ ﻭَﻗَﻮﻣِﻪِ ﻣﺎ
ﺗَﻌﺒُﺪﻭﻥَ
[70] যখন তাঁর পিতাকে এবং তাঁর সম্প্রদায়কে
বললেন, তোমরা কিসের এবাদত কর?
[70] When he said to his father and his
people: “What do you worship?”
[71] ﻗﺎﻟﻮﺍ ﻧَﻌﺒُﺪُ ﺃَﺻﻨﺎﻣًﺎ ﻓَﻨَﻈَﻞُّ
ﻟَﻬﺎ ﻋٰﻜِﻔﻴﻦَ
[71] তারা বলল, আমরা প্রতিমার পূজা করি এবং
সারাদিন এদেরকেই নিষ্ঠার সাথে আঁকড়ে
থাকি।
[71] They said: “We worship idols, and
to them we are ever devoted.”
[72] ﻗﺎﻝَ ﻫَﻞ ﻳَﺴﻤَﻌﻮﻧَﻜُﻢ ﺇِﺫ
ﺗَﺪﻋﻮﻥَ
[72] ইব্রাহীম (আঃ) বললেন, তোমরা যখন
আহবান কর, তখন তারা শোনে কি?
[72] He said: “Do they hear you, when
you call on (them)?
[73] ﺃَﻭ ﻳَﻨﻔَﻌﻮﻧَﻜُﻢ ﺃَﻭ ﻳَﻀُﺮّﻭﻥَ
[73] অথবা তারা কি তোমাদের উপকার কিংবা ক্ষতি
করতে পারে?
[73] “Or do they benefit you or do they
harm (you)?”
[74] ﻗﺎﻟﻮﺍ ﺑَﻞ ﻭَﺟَﺪﻧﺎ ﺀﺍﺑﺎﺀَﻧﺎ
ﻛَﺬٰﻟِﻚَ ﻳَﻔﻌَﻠﻮﻥَ
[74] তারা বললঃ না, তবে আমরা আমাদের
পিতৃপুরুষদেরকে পেয়েছি, তারা এরূপই করত।
[74] They said: “(Nay), but we found our
fathers doing so.”
[75] ﻗﺎﻝَ ﺃَﻓَﺮَﺀَﻳﺘُﻢ ﻣﺎ ﻛُﻨﺘُﻢ
ﺗَﻌﺒُﺪﻭﻥَ
[75] ইব্রাহীম বললেন, তোমরা কি তাদের
সম্পর্কে ভেবে দেখেছ, যাদের পূজা
করে আসছ।
[75] He said: “Do you observe that which
you have been worshipping,—
[76] ﺃَﻧﺘُﻢ ﻭَﺀﺍﺑﺎﺅُﻛُﻢُ
ﺍﻷَﻗﺪَﻣﻮﻥَ
[76] তোমরা এবং তোমাদের পূর্ববর্তী
পিতৃপুরুষেরা ?
[76] “You and your ancient fathers?
[77] ﻓَﺈِﻧَّﻬُﻢ ﻋَﺪُﻭٌّ ﻟﻰ ﺇِﻟّﺎ ﺭَﺏَّ
ﺍﻟﻌٰﻠَﻤﻴﻦَ
[77] বিশ্বপালনকর্তা ব্যতীত তারা সবাই আমার
শত্রু।
[77] “Verily! they are enemies to me,
save the Lord of the ‘Alamîn (mankind,
jinn and all that exists);
[78] ﺍﻟَّﺬﻯ ﺧَﻠَﻘَﻨﻰ ﻓَﻬُﻮَ ﻳَﻬﺪﻳﻦِ
[78] যিনি আমাকে সৃষ্টি করেছেন, অতঃপর
তিনিই আমাকে পথপ্রদর্শন করেন,
[78] “Who has created me, and it is He
Who guides me;
[79] ﻭَﺍﻟَّﺬﻯ ﻫُﻮَ ﻳُﻄﻌِﻤُﻨﻰ
ﻭَﻳَﺴﻘﻴﻦِ
[79] যিনি আমাকে আহার এবং পানীয় দান
করেন,
[79] “And it is He Who feeds me and
gives me to drink
[80] ﻭَﺇِﺫﺍ ﻣَﺮِﺿﺖُ ﻓَﻬُﻮَ ﻳَﺸﻔﻴﻦِ
[80] যখন আমি রোগাক্রান্ত হই, তখন তিনিই
আরোগ্য দান করেন।
[80] “And when I am ill, it is He who
cures me;
[81] ﻭَﺍﻟَّﺬﻯ ﻳُﻤﻴﺘُﻨﻰ ﺛُﻢَّ
ﻳُﺤﻴﻴﻦِ
[81] যিনি আমার মৃত্যু ঘটাবেন, অতঃপর
পুনর্জীবন দান করবেন।
[81] “And Who will cause me to die, and
then will bring me to life (again);
[82] ﻭَﺍﻟَّﺬﻯ ﺃَﻃﻤَﻊُ ﺃَﻥ ﻳَﻐﻔِﺮَ ﻟﻰ
ﺧَﻄﻴـَٔﺘﻰ ﻳَﻮﻡَ ﺍﻟﺪّﻳﻦِ
[82] আমি আশা করি তিনিই বিচারের দিনে আমার
ক্রটি-বিচ্যুতি মাফ করবেন।
[82] “And Who, I hope will forgive me
my faults on the Day of Recompense,
(the Day of Resurrection),”
[83] ﺭَﺏِّ ﻫَﺐ ﻟﻰ ﺣُﻜﻤًﺎ
ﻭَﺃَﻟﺤِﻘﻨﻰ ﺑِﺎﻟﺼّٰﻠِﺤﻴﻦَ
[83] হে আমার পালনকর্তা, আমাকে প্রজ্ঞা
দান কর এবং আমাকে সৎকর্মশীলদের
অন্তর্ভুক্ত কর
[83] My Lord! Bestow Hukm (religious
knowledge, right judgement of the
affairs and Prophethood) on me, and
join me with the righteous,
[84] ﻭَﺍﺟﻌَﻞ ﻟﻰ ﻟِﺴﺎﻥَ ﺻِﺪﻕٍ
ﻓِﻰ ﺍﻝﺀﺍﺧِﺮﻳﻦَ
[84] এবং আমাকে পরবর্তীদের মধ্যে
সত্যভাষী কর।
[84] And grant me an honourable
mention in later generations.
[85] ﻭَﺍﺟﻌَﻠﻨﻰ ﻣِﻦ ﻭَﺭَﺛَﺔِ ﺟَﻨَّﺔِ
ﺍﻟﻨَّﻌﻴﻢِ
[85] এবং আমাকে নেয়ামত উদ্যানের
অধিকারীদের অন্তর্ভূক্ত কর।
[85] And make me one of the inheritors
of the Paradise of Delight.
[86] ﻭَﺍﻏﻔِﺮ ﻟِﺄَﺑﻰ ﺇِﻧَّﻪُ ﻛﺎﻥَ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﻀّﺎﻟّﻴﻦَ
[86] এবং আমার পিতাকে ক্ষমা কর। সে তো
পথভ্রষ্টদের অন্যতম।
[86] And forgive my father, verily he is
of the erring.
[87] ﻭَﻻ ﺗُﺨﺰِﻧﻰ ﻳَﻮﻡَ ﻳُﺒﻌَﺜﻮﻥَ
[87] এবং পূনরুত্থান দিবসে আমাকে লাঞ্ছিত
করো না,
[87] And disgrace me not on the Day
when (all the creatures) will be
resurrected;
[88] ﻳَﻮﻡَ ﻻ ﻳَﻨﻔَﻊُ ﻣﺎﻝٌ ﻭَﻻ
ﺑَﻨﻮﻥَ
[88] যে দিবসে ধন-সম্পদ ও সন্তান সন্ততি
কোন উপকারে আসবে না;
[88] The Day whereon neither wealth nor
sons will avail,
[89] ﺇِﻟّﺎ ﻣَﻦ ﺃَﺗَﻰ ﺍﻟﻠَّﻪَ ﺑِﻘَﻠﺐٍ
ﺳَﻠﻴﻢٍ
[89] কিন্তু যে সুস্থ অন্তর নিয়ে আল্লাহর
কাছে আসবে।
[89] Except him who brings to Allâh a
clean heart [clean from Shirk
(polytheism) and Nifâq (hypocrisy)].
[90] ﻭَﺃُﺯﻟِﻔَﺖِ ﺍﻟﺠَﻨَّﺔُ ﻟِﻠﻤُﺘَّﻘﻴﻦَ
[90] জান্নাত আল্লাহভীরুদের নিকটবর্তী
করা হবে।
[90] And Paradise will be brought near
to the Muttaqûn (pious and righteous
persons – see V.2:2).
[91] ﻭَﺑُﺮِّﺯَﺕِ ﺍﻟﺠَﺤﻴﻢُ ﻟِﻠﻐﺎﻭﻳﻦَ
[91] এবং বিপথগামীদের সামনে উম্মোচিত
করা হবে জাহান্নাম।
[91] And the (Hell) Fire will be placed in
full view of the erring.
[92] ﻭَﻗﻴﻞَ ﻟَﻬُﻢ ﺃَﻳﻦَ ﻣﺎ ﻛُﻨﺘُﻢ
ﺗَﻌﺒُﺪﻭﻥَ
[92] তাদেরকে বলা হবেঃ তারা কোথায়,
তোমরা যাদের পূজা করতে।
[92] And it will be said to them: “Where
are those (the false gods whom you used
to set up as rivals with Allâh) that you
used to worship.
[93] ﻣِﻦ ﺩﻭﻥِ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﻫَﻞ
ﻳَﻨﺼُﺮﻭﻧَﻜُﻢ ﺃَﻭ ﻳَﻨﺘَﺼِﺮﻭﻥَ
[93] আল্লাহর পরিবর্তে? তারা কি তোমাদের
সাহায্য করতে পারে, অথবা তারা প্রতিশোধ
নিতে পারে?
[93] “Instead of Allâh? Can they help you
or (even) help themselves?”
[94] ﻓَﻜُﺒﻜِﺒﻮﺍ ﻓﻴﻬﺎ ﻫُﻢ
ﻭَﺍﻟﻐﺎﻭۥﻥَ
[94] অতঃপর তাদেরকে এবং
পথভ্রষ্টদেরকে আধোমুখি করে নিক্ষেপ
করা হবে জাহান্নামে।
[94] Then they will be thrown on their
faces into the (Fire), They and the
Ghâwûn (devils, and those who were in
error).
[95] ﻭَﺟُﻨﻮﺩُ ﺇِﺑﻠﻴﺲَ ﺃَﺟﻤَﻌﻮﻥَ
[95] এবং ইবলীস বাহিনীর সকলকে।
[95] And the whole hosts of Iblîs (Satan)
together.
[96] ﻗﺎﻟﻮﺍ ﻭَﻫُﻢ ﻓﻴﻬﺎ
ﻳَﺨﺘَﺼِﻤﻮﻥَ
[96] তারা তথায় কথা কাটাকাটিতে লিপ্ত হয়ে
বলবেঃ
[96] They will say while contending
therein,
[97] ﺗَﺎﻟﻠَّﻪِ ﺇِﻥ ﻛُﻨّﺎ ﻟَﻔﻰ ﺿَﻠٰﻞٍ
ﻣُﺒﻴﻦٍ
[97] আল্লাহর কসম, আমরা প্রকাশ্য
বিভ্রান্তিতে লিপ্ত ছিলাম।
[97] By Allâh, we were truly in a
manifest error,
[98] ﺇِﺫ ﻧُﺴَﻮّﻳﻜُﻢ ﺑِﺮَﺏِّ ﺍﻟﻌٰﻠَﻤﻴﻦَ
[98] যখন আমরা তোমাদেরকে বিশ্ব-
পালনকর্তার সমতুল্য গন্য করতাম।
[98] When We held you (false gods) as
equals (in worship) with the Lord of the
‘Alamîn (mankind, jinn and all that
exists);
[99] ﻭَﻣﺎ ﺃَﺿَﻠَّﻨﺎ ﺇِﻟَّﺎ ﺍﻟﻤُﺠﺮِﻣﻮﻥَ
[99] আমাদেরকে দুষ্টকর্মীরাই গোমরাহ
করেছিল।
[99] And none has brought us into error
except the Mujrimûn [Iblîs (Satan) and
those of human beings who commit
crimes, murderers, polytheists,
oppressors],
[100] ﻓَﻤﺎ ﻟَﻨﺎ ﻣِﻦ ﺷٰﻔِﻌﻴﻦَ
[100] অতএব আমাদের কোন সুপারিশকারী
নেই।
[100] Now we have no intercessors,
[101] ﻭَﻻ ﺻَﺪﻳﻖٍ ﺣَﻤﻴﻢٍ
[101] এবং কোন সহৃদয় বন্ধু ও নেই।
[101] Nor a close friend (to help us).
[102] ﻓَﻠَﻮ ﺃَﻥَّ ﻟَﻨﺎ ﻛَﺮَّﺓً ﻓَﻨَﻜﻮﻥَ
ﻣِﻦَ ﺍﻟﻤُﺆﻣِﻨﻴﻦَ
[102] হায়, যদি কোনরুপে আমরা পৃথিবীতে
প্রত্যাবর্তনের সুযোগ পেতাম, তবে আমরা
বিশ্বাস স্থাপনকারী হয়ে যেতাম।
[102] (Alas!) If we only had a chance to
return (to the world), we shall truly be
among the believers!
[103] ﺇِﻥَّ ﻓﻰ ﺫٰﻟِﻚَ ﻝَﺀﺍﻳَﺔً ۖ ﻭَﻣﺎ
ﻛﺎﻥَ ﺃَﻛﺜَﺮُﻫُﻢ ﻣُﺆﻣِﻨﻴﻦَ
[103] নিশ্চয়, এতে নিদর্শন আছে এবং
তাদের অধিকাংশই বিশ্বাসী নয়।
[103] Verily! In this is indeed a sign, yet
most of them are not believers.
[104] ﻭَﺇِﻥَّ ﺭَﺑَّﻚَ ﻟَﻬُﻮَ ﺍﻟﻌَﺰﻳﺰُ
ﺍﻟﺮَّﺣﻴﻢُ
[104] আপনার পালনকর্তা প্রবল পরাক্রমশালী,
পরম দয়ালু।
[104] And verily, your Lord! He is truly
the All-Mighty, the Most Merciful.
[105] ﻛَﺬَّﺑَﺖ ﻗَﻮﻡُ ﻧﻮﺡٍ
ﺍﻟﻤُﺮﺳَﻠﻴﻦَ
[105] নূহের সম্প্রদায় পয়গম্বরগণকে
মিথ্যারোপ করেছে।
[105] The people of Nûh (Noah) belied
the Messengers.
[106] ﺇِﺫ ﻗﺎﻝَ ﻟَﻬُﻢ ﺃَﺧﻮﻫُﻢ ﻧﻮﺡٌ
ﺃَﻻ ﺗَﺘَّﻘﻮﻥَ
[106] যখন তাদের ভ্রাতা নূহ তাদেরকে
বললেন, তোমাদের কি ভয় নেই?
[106] When their brother Nûh (Noah)
said to them: “Will you not fear Allâh
and obey Him?
[107] ﺇِﻧّﻰ ﻟَﻜُﻢ ﺭَﺳﻮﻝٌ ﺃَﻣﻴﻦٌ
[107] আমি তোমাদের জন্য বিশ্বস্ত
বার্তাবাহক।
[107] “I am a trustworthy Messenger to
you.
[108] ﻓَﺎﺗَّﻘُﻮﺍ ﺍﻟﻠَّﻪَ ﻭَﺃَﻃﻴﻌﻮﻥِ
[108] অতএব, তোমরা আল্লাহকে ভয় কর এবং
আমার আনুগত্য কর।
[108] “So fear Allâh, keep your duty to
Him, and obey me.
[109] ﻭَﻣﺎ ﺃَﺳـَٔﻠُﻜُﻢ ﻋَﻠَﻴﻪِ ﻣِﻦ
ﺃَﺟﺮٍ ۖ ﺇِﻥ ﺃَﺟﺮِﻯَ ﺇِﻟّﺎ ﻋَﻠﻰٰ ﺭَﺏِّ
ﺍﻟﻌٰﻠَﻤﻴﻦَ
[109] আমি তোমাদের কাছে এর জন্য কোন
প্রতিদান চাই না, আমার প্রতিদান তো বিশ্ব-
পালনকর্তাই দেবেন।
[109] “No reward do I ask of you for it
(my Message of Islâmic Monotheism), my
reward is only from the Lord of the
‘Alamîn (mankind, jinn and all that
exists).
[110] ﻓَﺎﺗَّﻘُﻮﺍ ﺍﻟﻠَّﻪَ ﻭَﺃَﻃﻴﻌﻮﻥِ
[110] অতএব, তোমরা আল্লাহকে ভয় কর এবং
আমার আনুগত্য কর।
[110] “So keep your duty to Allâh, fear
Him and obey me.”
[111] ۞ ﻗﺎﻟﻮﺍ ﺃَﻧُﺆﻣِﻦُ ﻟَﻚَ
ﻭَﺍﺗَّﺒَﻌَﻚَ ﺍﻷَﺭﺫَﻟﻮﻥَ
[111] তারা বলল, আমরা কি তোমাকে মেনে
নেব যখন তোমার অনুসরণ করছে
ইতরজনেরা?
[111] They said: “Shall we believe in you,
when the meanest (of the people) follow
you?”
[112] ﻗﺎﻝَ ﻭَﻣﺎ ﻋِﻠﻤﻰ ﺑِﻤﺎ
ﻛﺎﻧﻮﺍ ﻳَﻌﻤَﻠﻮﻥَ
[112] নূহ বললেন, তারা কি কাজ করছে, তা জানা
আমার কি দরকার?
[112] He said: “And what knowledge
have I of what they used to do?
[113] ﺇِﻥ ﺣِﺴﺎﺑُﻬُﻢ ﺇِﻟّﺎ ﻋَﻠﻰٰ
ﺭَﺑّﻰ ۖ ﻟَﻮ ﺗَﺸﻌُﺮﻭﻥَ
[113] তাদের হিসাব নেয়া আমার পালনকর্তারই
কাজ; যদি তোমরা বুঝতে!
[113] “Their account is only with my
Lord, if you could (but) know.
[114] ﻭَﻣﺎ ﺃَﻧﺎ۠ ﺑِﻄﺎﺭِﺩِ ﺍﻟﻤُﺆﻣِﻨﻴﻦَ
[114] আমি মুমিনগণকে তাড়িয়ে দেয়ার লোক
নই।
[114] “And I am not going to drive away
the believers.
[115] ﺇِﻥ ﺃَﻧﺎ۠ ﺇِﻟّﺎ ﻧَﺬﻳﺮٌ ﻣُﺒﻴﻦٌ
[115] আমি তো শুধু একজন সুস্পষ্ট
সতর্ককারী।
[115] I am only a plain warner.”
[116] ﻗﺎﻟﻮﺍ ﻟَﺌِﻦ ﻟَﻢ ﺗَﻨﺘَﻪِ ﻳٰﻨﻮﺡُ
ﻟَﺘَﻜﻮﻧَﻦَّ ﻣِﻦَ ﺍﻟﻤَﺮﺟﻮﻣﻴﻦَ
[116] তারা বলল, হে নূহ যদি তুমি বিরত না হও,
তবে তুমি নিশ্চিতই প্রস্তরাঘাতে নিহত হবে।
[116] They said: “If you cease not, O Nûh
(Noah)! You will surely be among those
stoned (to death).”
[117] ﻗﺎﻝَ ﺭَﺏِّ ﺇِﻥَّ ﻗَﻮﻣﻰ
ﻛَﺬَّﺑﻮﻥِ
[117] নূহ বললেন, হে আমার পালনকর্তা,
আমার সম্প্রদায় তো আমাকে মিথ্যাবাদী
বলছে।
[117] He said: “My Lord! Verily, my
people have belied me.
[118] ﻓَﺎﻓﺘَﺢ ﺑَﻴﻨﻰ ﻭَﺑَﻴﻨَﻬُﻢ
ﻓَﺘﺤًﺎ ﻭَﻧَﺠِّﻨﻰ ﻭَﻣَﻦ ﻣَﻌِﻰَ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﻤُﺆﻣِﻨﻴﻦَ
[118] অতএব, আমার ও তাদের মধ্যে কোন
ফয়সালা করে দিন এবং আমাকে ও আমার সংগী
মুমিনগণকে রক্ষা করুন।
[118] Therefore judge You between me
and them, and save me and those of the
believers who are with me.”
[119] ﻓَﺄَﻧﺠَﻴﻨٰﻪُ ﻭَﻣَﻦ ﻣَﻌَﻪُ ﻓِﻰ
ﺍﻟﻔُﻠﻚِ ﺍﻟﻤَﺸﺤﻮﻥِ
[119] অতঃপর আমি তাঁকে ও তাঁর সঙ্গিগণকে
বোঝাই করা নৌকায় রক্ষা করলাম।
[119] And We saved him and those with
him in the laden ship.
[120] ﺛُﻢَّ ﺃَﻏﺮَﻗﻨﺎ ﺑَﻌﺪُ ﺍﻟﺒﺎﻗﻴﻦَ
[120] এরপর অবশিষ্ট সবাইকে নিমজ্জত
করলাম।
[120] Then We drowned the rest
(disbelievers) thereafter.
[121] ﺇِﻥَّ ﻓﻰ ﺫٰﻟِﻚَ ﻝَﺀﺍﻳَﺔً ۖ ﻭَﻣﺎ
ﻛﺎﻥَ ﺃَﻛﺜَﺮُﻫُﻢ ﻣُﺆﻣِﻨﻴﻦَ
[121] নিশ্চয় এতে নিদর্শন আছে এবং
তাদের অধিকাংশই বিশ্বাসী নয়।
[121] Verily, in this is indeed a sign, yet
most of them are not believers.
[122] ﻭَﺇِﻥَّ ﺭَﺑَّﻚَ ﻟَﻬُﻮَ ﺍﻟﻌَﺰﻳﺰُ
ﺍﻟﺮَّﺣﻴﻢُ
[122] নিশ্চয় আপনার পালনকর্তা প্রবল
পরাক্রমশালী, পরম দয়ালু।
[122] And verily! Your Lord, He is indeed
the All-Mighty, the Most Merciful.
[123] ﻛَﺬَّﺑَﺖ ﻋﺎﺩٌ ﺍﻟﻤُﺮﺳَﻠﻴﻦَ
[123] আদ সম্প্রদায় পয়গম্বরগণকে
মিথ্যাবাদী বলেছে।
[123] ‘Ad (people) belied the Messengers.
[124] ﺇِﺫ ﻗﺎﻝَ ﻟَﻬُﻢ ﺃَﺧﻮﻫُﻢ ﻫﻮﺩٌ
ﺃَﻻ ﺗَﺘَّﻘﻮﻥَ
[124] তখন তাদের ভাই হুদ তাদেরকে
বললেনঃ তোমাদের কি ভয় নেই?
[124] When their brother Hûd said to
them: “Will you not fear Allâh and obey
Him?
[125] ﺇِﻧّﻰ ﻟَﻜُﻢ ﺭَﺳﻮﻝٌ ﺃَﻣﻴﻦٌ
[125] আমি তোমাদের বিশ্বস্ত রসূল।
[125] “Verily! I am a trustworthy
Messenger to you.
[126] ﻓَﺎﺗَّﻘُﻮﺍ ﺍﻟﻠَّﻪَ ﻭَﺃَﻃﻴﻌﻮﻥِ
[126] অতএব, তোমরা আল্লাহকে ভয় কর এবং
আমার আনুগত্য কর।
[126] &#