56. সুরাহ আল ওয়াকিয়াহ (01-96)


ﺑِﺴﻢِ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺍﻟﺮَّﺣﻤٰﻦِ ﺍﻟﺮَّﺣﻴﻢِ – শুরু
করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম
করুণাময়, অতি দয়ালু
[1] ﺇِﺫﺍ ﻭَﻗَﻌَﺖِ ﺍﻟﻮﺍﻗِﻌَﺔُ
[1] যখন কিয়ামতের ঘটনা ঘটবে,
[1] When the Event (i.e. the Day of
Resurrection) befalls.
[2] ﻟَﻴﺲَ ﻟِﻮَﻗﻌَﺘِﻬﺎ ﻛﺎﺫِﺑَﺔٌ
[2] যার বাস্তবতায় কোন সংশয় নেই।
[2] And there can be no denyial of its
befalling.
[3] ﺧﺎﻓِﻀَﺔٌ ﺭﺍﻓِﻌَﺔٌ
[3] এটা নীচু করে দেবে, সমুন্নত করে
দেবে।
[3] Bringing low (some — those who will
enter Hell) Exalting (others- those who
will enter Paradise). (Tafsir Ibn-Kathir)
[4] ﺇِﺫﺍ ﺭُﺟَّﺖِ ﺍﻷَﺭﺽُ ﺭَﺟًّﺎ
[4] যখন প্রবলভাবে প্রকম্পিত হবে
পৃথিবী।
[4] When the earth will be shaken with a
terrible shake.
[5] ﻭَﺑُﺴَّﺖِ ﺍﻟﺠِﺒﺎﻝُ ﺑَﺴًّﺎ
[5] এবং পর্বতমালা ভেঙ্গে চুরমার হয়ে
যাবে।
[5] And the mountains will be powdered
to dust.
[6] ﻓَﻜﺎﻧَﺖ ﻫَﺒﺎﺀً ﻣُﻨﺒَﺜًّﺎ
[6] অতঃপর তা হয়ে যাবে উৎক্ষিপ্ত
ধূলিকণা।
[6] So that they will become floating dust
particles.
[7] ﻭَﻛُﻨﺘُﻢ ﺃَﺯﻭٰﺟًﺎ ﺛَﻠٰﺜَﺔً
[7] এবং তোমরা তিনভাবে বিভক্ত
হয়ে পড়বে।
[7] And you (all) will be in three groups.
[8] ﻓَﺄَﺻﺤٰﺐُ ﺍﻟﻤَﻴﻤَﻨَﺔِ ﻣﺎ
ﺃَﺻﺤٰﺐُ ﺍﻟﻤَﻴﻤَﻨَﺔِ
[8] যারা ডান দিকে, কত ভাগ্যবান
তারা।
[8] So those on the Right Hand (i.e. those
who will be given their Records in their
right hands) — how (fortunate) will be
those on the Right Hand! (As a respect
for them, because they will enter
Paradise).
[9] ﻭَﺃَﺻﺤٰﺐُ ﺍﻟﻤَﺸـَٔﻤَﺔِ ﻣﺎ
ﺃَﺻﺤٰﺐُ ﺍﻟﻤَﺸـَٔﻤَﺔِ
[9] এবং যারা বামদিকে, কত হতভাগা
তারা।
[9] And those on the Left Hand (i.e. those
who will be given their Record in their
left hands) — how (unfortunate) will be
those on the Left Hand? (As a disgrace
for them, because they will enter Hell).
[10] ﻭَﺍﻟﺴّٰﺒِﻘﻮﻥَ ﺍﻟﺴّٰﺒِﻘﻮﻥَ
[10] অগ্রবর্তীগণ তো অগ্রবর্তীই।
[10] And those foremost [(in Islâmic
Faith of Monotheism and in performing
righteous deeds) in the life of this world
on the very first call for to embrace
Islâm,] will be foremost (in Paradise).
[11] ﺃُﻭﻟٰﺌِﻚَ ﺍﻟﻤُﻘَﺮَّﺑﻮﻥَ
[11] তারাই নৈকট্যশীল,
[11] These will be those nearest (to
Allâh).
[12] ﻓﻰ ﺟَﻨّٰﺖِ ﺍﻟﻨَّﻌﻴﻢِ
[12] অবদানের উদ্যানসমূহে,
[12] In the Gardens of Delight (Paradise).
[13] ﺛُﻠَّﺔٌ ﻣِﻦَ ﺍﻷَﻭَّﻟﻴﻦَ
[13] তারা একদল পূর্ববর্তীদের মধ্য
থেকে।
[13] A multitude of those (foremost) will
be from the first generations (who
embraced Islâm).
[14] ﻭَﻗَﻠﻴﻞٌ ﻣِﻦَ ﺍﻝﺀﺍﺧِﺮﻳﻦَ
[14] এবং অল্পসংখ্যক পরবর্তীদের
মধ্যে থেকে।
[14] And a few of those (foremost) will
be from the later generations.
[15] ﻋَﻠﻰٰ ﺳُﺮُﺭٍ ﻣَﻮﺿﻮﻧَﺔٍ
[15] স্বর্ণ খচিত সিংহাসন।
[15] (They will be) on thrones woven
with gold and precious stones,
[16] ﻣُﺘَّﻜِـٔﻴﻦَ ﻋَﻠَﻴﻬﺎ ﻣُﺘَﻘٰﺒِﻠﻴﻦَ
[16] তারা তাতে হেলান দিয়ে বসবে
পরস্পর মুখোমুখি হয়ে।
[16] Reclining thereon, face to face.
[17] ﻳَﻄﻮﻑُ ﻋَﻠَﻴﻬِﻢ ﻭِﻟﺪٰﻥٌ
ﻣُﺨَﻠَّﺪﻭﻥَ
[17] তাদের কাছে ঘোরাফেরা করবে
চির কিশোরেরা।
[17] Immortal boys will go around them
(serving).
[18] ﺑِﺄَﻛﻮﺍﺏٍ ﻭَﺃَﺑﺎﺭﻳﻖَ ﻭَﻛَﺄﺱٍ
ﻣِﻦ ﻣَﻌﻴﻦٍ
[18] পানপাত্র কুঁজা ও খাঁটি সূরাপূর্ণ
পেয়ালা হাতে নিয়ে,
[18] With cups, and jugs, and a glass of
the flowing wine,
[19] ﻻ ﻳُﺼَﺪَّﻋﻮﻥَ ﻋَﻨﻬﺎ ﻭَﻻ
ﻳُﻨﺰِﻓﻮﻥَ
[19] যা পান করলে তাদের শিরঃপীড়া
হবে না এবং বিকারগ্রস্ত ও হবে না।
[19] Wherefrom they will get neither any
aching of the head, nor any intoxication.
[20] ﻭَﻓٰﻜِﻬَﺔٍ ﻣِﻤّﺎ ﻳَﺘَﺨَﻴَّﺮﻭﻥَ
[20] আর তাদের পছন্দমত ফল-মুল নিয়ে,
[20] And with fruit, that they may
choose.
[21] ﻭَﻟَﺤﻢِ ﻃَﻴﺮٍ ﻣِﻤّﺎ ﻳَﺸﺘَﻬﻮﻥَ
[21] এবং রুচিমত পাখীর মাংস নিয়ে।
[21] And with the flesh of fowls that they
desire.
[22] ﻭَﺣﻮﺭٌ ﻋﻴﻦٌ
[22] তথায় থাকবে আনতনয়না হুরগণ,
[22] And (there will be) Hur (fair
females) with wide, lovely eyes (as wives
for the pious),
[23] ﻛَﺄَﻣﺜٰﻞِ ﺍﻟﻠُّﺆﻟُﺆِ ﺍﻟﻤَﻜﻨﻮﻥِ
[23] আবরণে রক্ষিত মোতির ন্যায়,
[23] Like unto preserved pearls.
[24] ﺟَﺰﺍﺀً ﺑِﻤﺎ ﻛﺎﻧﻮﺍ ﻳَﻌﻤَﻠﻮﻥَ
[24] তারা যা কিছু করত, তার
পুরস্কারস্বরূপ।
[24] A reward for what they used to do.
[25] ﻻ ﻳَﺴﻤَﻌﻮﻥَ ﻓﻴﻬﺎ ﻟَﻐﻮًﺍ ﻭَﻻ
ﺗَﺄﺛﻴﻤًﺎ
[25] তারা তথায় অবান্তর ও কোন
খারাপ কথা শুনবে না।
[25] No Laghw (dirty, false, evil vain talk)
will they hear therein, nor any sinful
speech (like backbiting).
[26] ﺇِﻟّﺎ ﻗﻴﻠًﺎ ﺳَﻠٰﻤًﺎ ﺳَﻠٰﻤًﺎ
[26] কিন্তু শুনবে সালাম আর সালাম।
[26] But only the saying of: Salâm!,
Salâm! (greetings with peace) !
[27] ﻭَﺃَﺻﺤٰﺐُ ﺍﻟﻴَﻤﻴﻦِ ﻣﺎ
ﺃَﺻﺤٰﺐُ ﺍﻟﻴَﻤﻴﻦِ
[27] যারা ডান দিকে থাকবে, তারা
কত ভাগ্যবান।
[27] And those on the Right Hand- how
(fortunate) will be those on the Right
Hand?
[28] ﻓﻰ ﺳِﺪﺭٍ ﻣَﺨﻀﻮﺩٍ
[28] তারা থাকবে কাঁটাবিহীন
বদরিকা বৃক্ষে।
[28] (They will be) among thornless lote-
trees,
[29] ﻭَﻃَﻠﺢٍ ﻣَﻨﻀﻮﺩٍ
[29] এবং কাঁদি কাঁদি কলায়,
[29] And Among Talh (banana-trees)
with fruits piled one above another,
[30] ﻭَﻇِﻞٍّ ﻣَﻤﺪﻭﺩٍ
[30] এবং দীর্ঘ ছায়ায়।
[30] And in shade long-extended,
[31] ﻭَﻣﺎﺀٍ ﻣَﺴﻜﻮﺏٍ
[31] এবং প্রবাহিত পানিতে,
[31] And by water flowing constantly,
[32] ﻭَﻓٰﻜِﻬَﺔٍ ﻛَﺜﻴﺮَﺓٍ
[32] ও প্রচুর ফল-মূলে,
[32] And fruit in plenty,
[33] ﻻ ﻣَﻘﻄﻮﻋَﺔٍ ﻭَﻻ ﻣَﻤﻨﻮﻋَﺔٍ
[33] যা শেষ হবার নয় এবং নিষিদ্ধ ও
নয়,
[33] Whose supply is not cut off (by
change of season) nor are they out of
reach.
[34] ﻭَﻓُﺮُﺵٍ ﻣَﺮﻓﻮﻋَﺔٍ
[34] আর থাকবে সমুন্নত শয্যায়।
[34] And on couches or thrones, raised
high.
[35] ﺇِﻧّﺎ ﺃَﻧﺸَﺄﻧٰﻬُﻦَّ ﺇِﻧﺸﺎﺀً
[35] আমি জান্নাতী রমণীগণকে
বিশেষরূপে সৃষ্টি করেছি।
[35] Verily, We have created them
(maidens) of special creation.
[36] ﻓَﺠَﻌَﻠﻨٰﻬُﻦَّ ﺃَﺑﻜﺎﺭًﺍ
[36] অতঃপর তাদেরকে করেছি
চিরকুমারী।
[36] And made them virgins.
[37] ﻋُﺮُﺑًﺎ ﺃَﺗﺮﺍﺑًﺎ
[37] কামিনী, সমবয়স্কা।
[37] Loving (their husbands only), end
(of) equal age.
[38] ﻟِﺄَﺻﺤٰﺐِ ﺍﻟﻴَﻤﻴﻦِ
[38] ডান দিকের লোকদের জন্যে।
[38] For those on the Right Hand.
[39] ﺛُﻠَّﺔٌ ﻣِﻦَ ﺍﻷَﻭَّﻟﻴﻦَ
[39] তাদের একদল হবে পূর্ববর্তীদের
মধ্য থেকে।
[39] A multitude of those (on the Right
Hand) will be from the first generation
(who embraced Islâm).
[40] ﻭَﺛُﻠَّﺔٌ ﻣِﻦَ ﺍﻝﺀﺍﺧِﺮﻳﻦَ
[40] এবং একদল পরবর্তীদের মধ্য
থেকে।
[40] And a multitude of those (on the
Right Hand) will be from the later
generations.
[41] ﻭَﺃَﺻﺤٰﺐُ ﺍﻟﺸِّﻤﺎﻝِ ﻣﺎ
ﺃَﺻﺤٰﺐُ ﺍﻟﺸِّﻤﺎﻝِ
[41] বামপার্শ্বস্থ লোক, কত না
হতভাগা তারা।
[41] And those on the Left Hand how
(unfortunate) will be those on the Left
Hand?
[42] ﻓﻰ ﺳَﻤﻮﻡٍ ﻭَﺣَﻤﻴﻢٍ
[42] তারা থাকবে প্রখর বাষ্পে এবং
উত্তপ্ত পানিতে,
[42] In fierce hot wind and boiling
water.
[43] ﻭَﻇِﻞٍّ ﻣِﻦ ﻳَﺤﻤﻮﻡٍ
[43] এবং ধুম্রকুঞ্জের ছায়ায়।
[43] And shadow of black smoke.
[44] ﻻ ﺑﺎﺭِﺩٍ ﻭَﻻ ﻛَﺮﻳﻢٍ
[44] যা শীতল নয় এবং আরামদায়কও নয়।
[44] (That shadow) neither cool, nor
(even) pleasant,
[45] ﺇِﻧَّﻬُﻢ ﻛﺎﻧﻮﺍ ﻗَﺒﻞَ ﺫٰﻟِﻚَ
ﻣُﺘﺮَﻓﻴﻦَ
[45] তারা ইতিপূর্বে স্বাচ্ছন্দ্যশীল
ছিল।
[45] Verily, before that, they indulged in
luxury,
[46] ﻭَﻛﺎﻧﻮﺍ ﻳُﺼِﺮّﻭﻥَ ﻋَﻠَﻰ
ﺍﻟﺤِﻨﺚِ ﺍﻟﻌَﻈﻴﻢِ
[46] তারা সদাসর্বদা ঘোরতর
পাপকর্মে ডুবে থাকত।
[46] And were persisting in great sin
(joining partners in worship along with
Allâh, committing murder and other
crimes).
[47] ﻭَﻛﺎﻧﻮﺍ ﻳَﻘﻮﻟﻮﻥَ ﺃَﺋِﺬﺍ ﻣِﺘﻨﺎ
ﻭَﻛُﻨّﺎ ﺗُﺮﺍﺑًﺎ ﻭَﻋِﻈٰﻤًﺎ ﺃَﺀِﻧّﺎ
ﻟَﻤَﺒﻌﻮﺛﻮﻥَ
[47] তারা বলতঃ আমরা যখন মরে অস্থি
ও মৃত্তিকায় পরিণত হয়ে যাব, তখনও কি
পুনরুত্থিত হব?
[47] And they used to say: “When we die
and become dust and bones, shall we
then indeed be resurrected?
[48] ﺃَﻭَﺀﺍﺑﺎﺅُﻧَﺎ ﺍﻷَﻭَّﻟﻮﻥَ
[48] এবং আমাদের পূর্বপুরুষগণও!
[48] “And also our forefathers?”
[49] ﻗُﻞ ﺇِﻥَّ ﺍﻷَﻭَّﻟﻴﻦَ
ﻭَﺍﻝﺀﺍﺧِﺮﻳﻦَ
[49] বলুনঃ পূর্ববর্তী ও পরবর্তীগণ,
[49] Say (O Muhammad SAW): “(Yes)
verily, those of old, and those of later
times.
[50] ﻟَﻤَﺠﻤﻮﻋﻮﻥَ ﺇِﻟﻰٰ ﻣﻴﻘٰﺖِ
ﻳَﻮﻡٍ ﻣَﻌﻠﻮﻡٍ
[50] সবাই একত্রিত হবে এক নির্দিষ্ট
দিনের নির্দিষ্ট সময়ে।
[50] “All will surely be gathered together
for appointed Meeting of a known Day.
[51] ﺛُﻢَّ ﺇِﻧَّﻜُﻢ ﺃَﻳُّﻬَﺎ ﺍﻟﻀّﺎﻟّﻮﻥَ
ﺍﻟﻤُﻜَﺬِّﺑﻮﻥَ
[51] অতঃপর হে পথভ্রষ্ট,
মিথ্যারোপকারীগণ।
[51] “Then moreover, verily, you the
erring-ones, the deniers (of
Resurrection)!
[52] ﻝَﺀﺍﻛِﻠﻮﻥَ ﻣِﻦ ﺷَﺠَﺮٍ ﻣِﻦ
ﺯَﻗّﻮﻡٍ
[52] তোমরা অবশ্যই ভক্ষণ করবে
যাক্কুম বৃক্ষ থেকে,
[52] “You verily will eat of the trees of
Zaqqûm.
[53] ﻓَﻤﺎﻟِـٔﻮﻥَ ﻣِﻨﻬَﺎ ﺍﻟﺒُﻄﻮﻥَ
[53] অতঃপর তা দ্বারা উদর পূর্ণ করবে,
[53] “Then you will fill your bellies
therewith,
[54] ﻓَﺸٰﺮِﺑﻮﻥَ ﻋَﻠَﻴﻪِ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﺤَﻤﻴﻢِ
[54] অতঃপর তার উপর পান করবে
উত্তপ্ত পানি।
[54] “And drink boiling water on top of
it.
[55] ﻓَﺸٰﺮِﺑﻮﻥَ ﺷُﺮﺏَ ﺍﻟﻬﻴﻢِ
[55] পান করবে পিপাসিত উটের ন্যায়।
[55] “And you will drink (that) like
thirsty camels!”
[56] ﻫٰﺬﺍ ﻧُﺰُﻟُﻬُﻢ ﻳَﻮﻡَ ﺍﻟﺪّﻳﻦِ
[56] কেয়ামতের দিন এটাই হবে তাদের
আপ্যায়ন।
[56] That will be their entertainment on
the Day of Recompense!
[57] ﻧَﺤﻦُ ﺧَﻠَﻘﻨٰﻜُﻢ ﻓَﻠَﻮﻻ
ﺗُﺼَﺪِّﻗﻮﻥَ
[57] আমি সৃষ্টি করেছি তোমাদেরকে।
অতঃপর কেন তোমরা তা সত্য বলে
বিশ্বাস কর না।
[57] We created you, then why do you
believe not?
[58] ﺃَﻓَﺮَﺀَﻳﺘُﻢ ﻣﺎ ﺗُﻤﻨﻮﻥَ
[58] তোমরা কি ভেবে দেখেছ,
তোমাদের বীর্যপাত সম্পর্কে।
[58] Then tell Me (about) the (human)
semen that you emit.
[59] ﺀَﺃَﻧﺘُﻢ ﺗَﺨﻠُﻘﻮﻧَﻪُ ﺃَﻡ ﻧَﺤﻦُ
ﺍﻟﺨٰﻠِﻘﻮﻥَ
[59] তোমরা তাকে সৃষ্টি কর, না আমি
সৃষ্টি করি?
[59] Is it you who create it (i.e. make this
semen into a perfect human being), or
are We the Creator?
[60] ﻧَﺤﻦُ ﻗَﺪَّﺭﻧﺎ ﺑَﻴﻨَﻜُﻢُ ﺍﻟﻤَﻮﺕَ
ﻭَﻣﺎ ﻧَﺤﻦُ ﺑِﻤَﺴﺒﻮﻗﻴﻦَ
[60] আমি তোমাদের মৃত্যুকাল
নির্ধারিত করেছি এবং আমি অক্ষম
নই।
[60] We have decreed death to you all,
and We are not outstripped,
[61] ﻋَﻠﻰٰ ﺃَﻥ ﻧُﺒَﺪِّﻝَ ﺃَﻣﺜٰﻠَﻜُﻢ
ﻭَﻧُﻨﺸِﺌَﻜُﻢ ﻓﻰ ﻣﺎ ﻻ ﺗَﻌﻠَﻤﻮﻥَ
[61] এ ব্যাপারে যে, তোমাদের
পরিবর্তে তোমাদের মত লোককে
নিয়ে আসি এবং তোমাদেরকে এমন
করে দেই, যা তোমরা জান না।
[61] To transfigure you and create you in
(forms) that you know not.
[62] ﻭَﻟَﻘَﺪ ﻋَﻠِﻤﺘُﻢُ ﺍﻟﻨَّﺸﺄَﺓَ
ﺍﻷﻭﻟﻰٰ ﻓَﻠَﻮﻻ ﺗَﺬَﻛَّﺮﻭﻥَ
[62] তোমরা অবগত হয়েছ প্রথম সৃষ্টি
সম্পর্কে, তবে তোমরা অনুধাবন কর না
কেন?
[62] And indeed, you have already
known the first form of creation (i.e. the
creation of Adam), why then do you not
remember (or take heed)?
[63] ﺃَﻓَﺮَﺀَﻳﺘُﻢ ﻣﺎ ﺗَﺤﺮُﺛﻮﻥَ
[63] তোমরা যে বীজ বপন কর, সে
সম্পর্কে ভেবে দেখেছ কি?
[63] Then tell Me! about seed that you
sow in the ground.
[64] ﺀَﺃَﻧﺘُﻢ ﺗَﺰﺭَﻋﻮﻧَﻪُ ﺃَﻡ ﻧَﺤﻦُ
ﺍﻟﺰّٰﺭِﻋﻮﻥَ
[64] তোমরা তাকে উৎপন্ন কর, না আমি
উৎপন্নকারী ?
[64] Is it you that make it grow, or are
We the Grower?
[65] ﻟَﻮ ﻧَﺸﺎﺀُ ﻟَﺠَﻌَﻠﻨٰﻪُ ﺣُﻄٰﻤًﺎ
ﻓَﻈَﻠﺘُﻢ ﺗَﻔَﻜَّﻬﻮﻥَ
[65] আমি ইচ্ছা করলে তাকে খড়কুটা
করে দিতে পারি, অতঃপর হয়ে যাবে
তোমরা বিস্ময়াবিষ্ট।
[65] Were it Our Will, We could crumble
it to dry pieces, and you would be
regretful (or left in wonderment). (Tafsir
Ibn-Kathir)
[66] ﺇِﻧّﺎ ﻟَﻤُﻐﺮَﻣﻮﻥَ
[66] বলবেঃ আমরা তো ঋণের চাপে
পড়ে গেলাম;
[66] (Saying): “We are indeed
Mughramûn (i.e. ruined or have lost the
money without any profit, or are
punished by the loss of all that we spend
for cultivation)! (Tafsir Al-Qurtubî)
[67] ﺑَﻞ ﻧَﺤﻦُ ﻣَﺤﺮﻭﻣﻮﻥَ
[67] বরং আমরা হূত সর্বস্ব হয়ে পড়লাম।
[67] “Nay, but we are deprived!”
[68] ﺃَﻓَﺮَﺀَﻳﺘُﻢُ ﺍﻟﻤﺎﺀَ ﺍﻟَّﺬﻯ
ﺗَﺸﺮَﺑﻮﻥَ
[68] তোমরা যে পানি পান কর, সে
সম্পর্কে ভেবে দেখেছ কি?
[68] Then tell Me about the water that
you drink.
[69] ﺀَﺃَﻧﺘُﻢ ﺃَﻧﺰَﻟﺘُﻤﻮﻩُ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﻤُﺰﻥِ ﺃَﻡ ﻧَﺤﻦُ ﺍﻟﻤُﻨﺰِﻟﻮﻥَ
[69] তোমরা তা মেঘ থেকে নামিয়ে
আন, না আমি বর্ষন করি?
[69] Is it you who cause it from the
rainclouds to come down, or are We the
Causer of it to come down?
[70] ﻟَﻮ ﻧَﺸﺎﺀُ ﺟَﻌَﻠﻨٰﻪُ ﺃُﺟﺎﺟًﺎ
ﻓَﻠَﻮﻻ ﺗَﺸﻜُﺮﻭﻥَ
[70] আমি ইচ্ছা করলে তাকে লোনা
করে দিতে পারি, অতঃপর তোমরা
কেন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ কর না?
[70] If We willed, We verily could make
it salt (and undrinkable), why then do
you not give thanks (to Allâh)?
[71] ﺃَﻓَﺮَﺀَﻳﺘُﻢُ ﺍﻟﻨّﺎﺭَ ﺍﻟَّﺘﻰ
ﺗﻮﺭﻭﻥَ
[71] তোমরা যে অগ্নি প্রজ্জ্বলিত কর,
সে সম্পর্কে ভেবে দেখেছ কি?
[71] Then tell Me about the fire which
you kindle.
[72] ﺀَﺃَﻧﺘُﻢ ﺃَﻧﺸَﺄﺗُﻢ ﺷَﺠَﺮَﺗَﻬﺎ
ﺃَﻡ ﻧَﺤﻦُ ﺍﻟﻤُﻨﺸِـٔﻮﻥَ
[72] তোমরা কি এর বৃক্ষ সৃষ্টি করেছ,
না আমি সৃষ্টি করেছি ?
[72] Is it you who made the tree thereof
to grow, or are We the Grower?
[73] ﻧَﺤﻦُ ﺟَﻌَﻠﻨٰﻬﺎ ﺗَﺬﻛِﺮَﺓً
ﻭَﻣَﺘٰﻌًﺎ ﻟِﻠﻤُﻘﻮﻳﻦَ
[73] আমি সেই বৃক্ষকে করেছি
স্মরণিকা এবং মরুবাসীদের জন্য
সামগ্রী।
[73] We have made it a Reminder (of the
Hell-fire, in the Hereafter); and an
article of use for the travellers (and all
the others, in this world).
[74] ﻓَﺴَﺒِّﺢ ﺑِﺎﺳﻢِ ﺭَﺑِّﻚَ
ﺍﻟﻌَﻈﻴﻢِ
[74] অতএব, আপনি আপনার মহান
পালনকর্তার নামে পবিত্রতা ঘোষণা
করুন।
[74] Then glorify with praises the Name
of your Lord, the Most Great.
[75] ۞ ﻓَﻼ ﺃُﻗﺴِﻢُ ﺑِﻤَﻮٰﻗِﻊِ
ﺍﻟﻨُّﺠﻮﻡِ
[75] অতএব, আমি তারকারাজির
অস্তাচলের শপথ করছি,
[75] So I swear by the setting of the stars.
[76] ﻭَﺇِﻧَّﻪُ ﻟَﻘَﺴَﻢٌ ﻟَﻮ ﺗَﻌﻠَﻤﻮﻥَ
ﻋَﻈﻴﻢٌ
[76] নিশ্চয় এটা এক মহা শপথ-যদি
তোমরা জানতে।
[76] And verily, that is indeed a great
oath, if you but know.
[77] ﺇِﻧَّﻪُ ﻟَﻘُﺮﺀﺍﻥٌ ﻛَﺮﻳﻢٌ
[77] নিশ্চয় এটা সম্মানিত কোরআন,
[77] That (this) is indeed an honourable
recitation (the Noble Qur’ân).
[78] ﻓﻰ ﻛِﺘٰﺐٍ ﻣَﻜﻨﻮﻥٍ
[78] যা আছে এক গোপন কিতাবে,
[78] In a Book well-guarded (with Allâh
in the heaven i.e. Al-Lauh Al-Mahfûz).
[79] ﻻ ﻳَﻤَﺴُّﻪُ ﺇِﻟَّﺎ ﺍﻟﻤُﻄَﻬَّﺮﻭﻥَ
[79] যারা পাক-পবিত্র, তারা ব্যতীত
অন্য কেউ একে স্পর্শ করবে না।
[79] Which (that Book with Allâh) none
can touch but the purified (i.e. the
angels).
[80] ﺗَﻨﺰﻳﻞٌ ﻣِﻦ ﺭَﺏِّ ﺍﻟﻌٰﻠَﻤﻴﻦَ
[80] এটা বিশ্ব-পালনকর্তার পক্ষ থেকে
অবতীর্ণ।
[80] A Revelation (this Qur’ân) from the
Lord of the ‘Alamîn (mankind, jinn and
all that exists).
[81] ﺃَﻓَﺒِﻬٰﺬَﺍ ﺍﻟﺤَﺪﻳﺚِ ﺃَﻧﺘُﻢ
ﻣُﺪﻫِﻨﻮﻥَ
[81] তবুও কি তোমরা এই বাণীর প্রতি
শৈথিল্য পদর্শন করবে?
[81] Is it such a talk (this Qur’an) that
you (disbelievers) deny?
[82] ﻭَﺗَﺠﻌَﻠﻮﻥَ ﺭِﺯﻗَﻜُﻢ ﺃَﻧَّﻜُﻢ
ﺗُﻜَﺬِّﺑﻮﻥَ
[82] এবং একে মিথ্যা বলাকেই
তোমরা তোমাদের ভূমিকায় পরিণত
করবে?
[82] And instead (of thanking Allâh) for
the provision He gives you, you deny
(Him by disbelief)!
[83] ﻓَﻠَﻮﻻ ﺇِﺫﺍ ﺑَﻠَﻐَﺖِ ﺍﻟﺤُﻠﻘﻮﻡَ
[83] অতঃপর যখন কারও প্রাণ কন্ঠাগত
হয়।
[83] Then why do you not (intervene)
when (the soul of a dying person)
reaches the throat?
[84] ﻭَﺃَﻧﺘُﻢ ﺣﻴﻨَﺌِﺬٍ ﺗَﻨﻈُﺮﻭﻥَ
[84] এবং তোমরা তাকিয়ে থাক,
[84] And you at the moment are looking
on,
[85] ﻭَﻧَﺤﻦُ ﺃَﻗﺮَﺏُ ﺇِﻟَﻴﻪِ ﻣِﻨﻜُﻢ
ﻭَﻟٰﻜِﻦ ﻻ ﺗُﺒﺼِﺮﻭﻥَ
[85] তখন আমি তোমাদের অপেক্ষা
তার অধিক নিকটে থাকি; কিন্তু
তোমরা দেখ না।
[85] But We (i.e. Our angels who take the
soul) are nearer to him than you, but you
see not, (Tafsir At-Tabarî)
[86] ﻓَﻠَﻮﻻ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢ ﻏَﻴﺮَ
ﻣَﺪﻳﻨﻴﻦَ
[86] যদি তোমাদের হিসাব-কিতাব না
হওয়াই ঠিক হয়,
[86] Then why do you not, if you are
exempt from the reckoning and
recompense (punishment) —
[87] ﺗَﺮﺟِﻌﻮﻧَﻬﺎ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢ
ﺻٰﺪِﻗﻴﻦَ
[87] তবে তোমরা এই আত্মাকে ফিরাও
না কেন, যদি তোমরা সত্যবাদী হও ?
[87] Bring back the soul (to its body), if
you are truthful?
[88] ﻓَﺄَﻣّﺎ ﺇِﻥ ﻛﺎﻥَ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﻤُﻘَﺮَّﺑﻴﻦَ
[88] যদি সে নৈকট্যশীলদের একজন হয়;
[88] Then, if he (the dying person) be of
the Muqarrabûn (those brought near to
Allâh),
[89] ﻓَﺮَﻭﺡٌ ﻭَﺭَﻳﺤﺎﻥٌ ﻭَﺟَﻨَّﺖُ
ﻧَﻌﻴﻢٍ
[89] তবে তার জন্যে আছে সুখ, উত্তম
রিযিক এবং নেয়ামতে ভরা উদ্যান।
[89] (There is for him) rest and
provision, and a Garden of Delights
(Paradise).
[90] ﻭَﺃَﻣّﺎ ﺇِﻥ ﻛﺎﻥَ ﻣِﻦ ﺃَﺻﺤٰﺐِ
ﺍﻟﻴَﻤﻴﻦِ
[90] আর যদি সে ডান পার্শ্বস্থদের
একজন হয়,
[90] And if he (the dying person) be of
those on the Right Hand,
[91] ﻓَﺴَﻠٰﻢٌ ﻟَﻚَ ﻣِﻦ ﺃَﺻﺤٰﺐِ
ﺍﻟﻴَﻤﻴﻦِ
[91] তবে তাকে বলা হবেঃ তোমার
জন্যে ডানপার্শ্বসস্থদের পক্ষ থেকে
সালাম।
[91] Then there is safety and peace (from
the Punishment of Allâh) for those on the
Right Hand.
[92] ﻭَﺃَﻣّﺎ ﺇِﻥ ﻛﺎﻥَ ﻣِﻦَ
ﺍﻟﻤُﻜَﺬِّﺑﻴﻦَ ﺍﻟﻀّﺎﻟّﻴﻦَ
[92] আর যদি সে পথভ্রষ্ট
মিথ্যারোপকারীদের একজন হয়,
[92] But if he (the dying person) be of
the denying (of the Resurrection), the
erring (away from the Right Path of
Islâmic Monotheism),
[93] ﻓَﻨُﺰُﻝٌ ﻣِﻦ ﺣَﻤﻴﻢٍ
[93] তবে তার আপ্যায়ন হবে উত্তপ্ত
পানি দ্বারা।
[93] Then for him is entertainment with
boiling water.
[94] ﻭَﺗَﺼﻠِﻴَﺔُ ﺟَﺤﻴﻢٍ
[94] এবং সে নিক্ষিপ্ত হবে অগ্নিতে।
[94] And burning in Hell-fire.
[95] ﺇِﻥَّ ﻫٰﺬﺍ ﻟَﻬُﻮَ ﺣَﻖُّ ﺍﻟﻴَﻘﻴﻦِ
[95] এটা ধ্রুব সত্য।
[95] Verily, this! This is an absolute
Truth with certainty.
[96] ﻓَﺴَﺒِّﺢ ﺑِﺎﺳﻢِ ﺭَﺑِّﻚَ
ﺍﻟﻌَﻈﻴﻢِ
[96] অতএব, আপনি আপনার মহান
পালনকর্তার নামে পবিত্রতা ঘোষণা
করুন।
[96] So glorify with praises the Name of
your Lord, the Most Great..
Surah Al Waqiah Recitation: Sa’ad Al Ghamdi 1. যখন কিয়ামতের ঘটনা ঘটবে, 2. যার বাস্তবতায় কোন সংশয় নেই। 3. এটা নীচু করে দেবে, সমুন্নত করে দেবে। 4. যখন প্রবলভাবে প্রকম্পিত হবে পৃথিবী। 5. এবং পর্বতমালা ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যাবে। 6. অতঃপর তা হয়ে যাবে উৎক্ষিপ্ত ধূলিকণা। 7. এবং তোমরা তিনভাবে বিভক্ত হয়ে পড়বে। 8. যারা ডান দিকে, কত ভাগ্যবান তারা। 9. এবং যারা বামদিকে, কত হতভাগা তারা। 10. অগ্রবর্তীগণ তো অগ্রবর্তীই। 11. তারাই নৈকট্যশীল, 12. অবদানের উদ্যানসমূহে, 13. তারা একদল পূর্ববর্তীদের মধ্য থেকে। 14. এবং অল্পসংখ্যক পরবর্তীদের মধ্যে থেকে। 15. স্বর্ণ খচিত সিংহাসন। 16. তারা তাতে হেলান দিয়ে বসবে পরস্পর মুখোমুখি হয়ে। 17. তাদের কাছে ঘোরাফেরা করবে চির কিশোরেরা। 18. পানপাত্র কুঁজা ও খাঁটি সূরাপূর্ণ পেয়ালা হাতে নিয়ে, 19. যা পান করলে তাদের শিরঃপীড়া হবে না এবং বিকারগ্রস্ত ও হবে না। 20. আর তাদের পছন্দমত ফল-মুল নিয়ে, 21. এবং রুচিমত পাখীর মাংস নিয়ে। 22. তথায় থাকবে আনতনয়না হুরগণ, 23. আবরণে রক্ষিত মোতির ন্যায়, 24. তারা যা কিছু করত, তার পুরস্কারস্বরূপ। 25. তারা তথায় অবান্তর ও কোন খারাপ কথা শুনবে না। 26. কিন্তু শুনবে সালাম আর সালাম। 27. যারা ডান দিকে থাকবে, তারা কত ভাগ্যবান। 28. তারা থাকবে কাঁটাবিহীন বদরিকা বৃক্ষে। 29. এবং কাঁদি কাঁদি কলায়, 30. এবং দীর্ঘ ছায়ায়। 31. এবং প্রবাহিত পানিতে, 32. ও প্রচুর ফল-মূলে, 33. যা শেষ হবার নয় এবং নিষিদ্ধ ও নয়, 34. আর থাকবে সমুন্নত শয্যায়। 35. আমি জান্নাতী রমণীগণকে বিশেষরূপে সৃষ্টি করেছি। 36. অতঃপর তাদেরকে করেছি চিরকুমারী। 37. কামিনী, সমবয়স্কা। 38. ডান দিকের লোকদের জন্যে। 39. তাদের একদল হবে পূর্ববর্তীদের মধ্য থেকে। 40. এবং একদল পরবর্তীদের মধ্য থেকে। 41. বামপার্শ্বস্থ লোক, কত না হতভাগা তারা। 42. তারা থাকবে প্রখর বাষ্পে এবং উত্তপ্ত পানিতে, 43. এবং ধুম্রকুঞ্জের ছায়ায়। 44. যা শীতল নয় এবং আরামদায়কও নয়। 45. তারা ইতিপূর্বে স্বাচ্ছন্দ্যশীল ছিল। 46. তারা সদাসর্বদা ঘোরতর পাপকর্মে ডুবে থাকত। 47. তারা বলতঃ আমরা যখন মরে অস্থি ও মৃত্তিকায় পরিণত হয়ে যাব, তখনও কি পুনরুত্থিত হব? 48. এবং আমাদের পূর্বপুরুষগণও! 49. বলুনঃ পূর্ববর্তী ও পরবর্তীগণ, 50. সবাই একত্রিত হবে এক নির্দিষ্ট দিনের নির্দিষ্ট সময়ে। 51. অতঃপর হে পথভ্রষ্ট, মিথ্যারোপকারীগণ। 52. তোমরা অবশ্যই ভক্ষণ করবে যাক্কুম বৃক্ষ থেকে, 53. অতঃপর তা দ্বারা উদর পূর্ণ করবে, 54. অতঃপর তার উপর পান করবে উত্তপ্ত পানি। 55. পান করবে পিপাসিত উটের ন্যায়। 56. কেয়ামতের দিন এটাই হবে তাদের আপ্যায়ন। 57. আমি সৃষ্টি করেছি তোমাদেরকে। অতঃপর কেন তোমরা তা সত্য বলে বিশ্বাস কর না। 58. তোমরা কি ভেবে দেখেছ, তোমাদের বীর্যপাত সম্পর্কে। 59. তোমরা তাকে সৃষ্টি কর, না আমি সৃষ্টি করি? 60. আমি তোমাদের মৃত্যুকাল নির্ধারিত করেছি এবং আমি অক্ষম নই। 61. এ ব্যাপারে যে, তোমাদের পরিবর্তে তোমাদের মত লোককে নিয়ে আসি এবং তোমাদেরকে এমন করে দেই, যা তোমরা জান না। 62. তোমরা অবগত হয়েছ প্রথম সৃষ্টি সম্পর্কে, তবে তোমরা অনুধাবন কর না কেন? 63. তোমরা যে বীজ বপন কর, সে সম্পর্কে ভেবে দেখেছ কি? 64. তোমরা তাকে উৎপন্ন কর, না আমি উৎপন্নকারী ? 65. আমি ইচ্ছা করলে তাকে খড়কুটা করে দিতে পারি, অতঃপর হয়ে যাবে তোমরা বিস্ময়াবিষ্ট। 66. বলবেঃ আমরা তো ঋণের চাপে পড়ে গেলাম; 67. বরং আমরা হূত সর্বস্ব হয়ে পড়লাম। 68. তোমরা যে পানি পান কর, সে সম্পর্কে ভেবে দেখেছ কি? 69. তোমরা তা মেঘ থেকে নামিয়ে আন, না আমি বর্ষন করি? 70. আমি ইচ্ছা করলে তাকে লোনা করে দিতে পারি, অতঃপর তোমরা কেন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ কর না? 71. তোমরা যে অগ্নি প্রজ্জ্বলিত কর, সে সম্পর্কে ভেবে দেখেছ কি? 72. তোমরা কি এর বৃক্ষ সৃষ্টি করেছ, না আমি সৃষ্টি করেছি ? 73. আমি সেই বৃক্ষকে করেছি স্মরণিকা এবং মরুবাসীদের জন্য সামগ্রী। 74. অতএব, আপনি আপনার মহান পালনকর্তার নামে পবিত্রতা ঘোষণা করুন। 75. অতএব, আমি তারকারাজির অস্তাচলের শপথ করছি, 76. নিশ্চয় এটা এক মহা শপথ-যদি তোমরা জানতে। 77. নিশ্চয় এটা সম্মানিত কোরআন, 78. যা আছে এক গোপন কিতাবে, 79. যারা পাক-পবিত্র, তারা ব্যতীত অন্য কেউ একে স্পর্শ করবে না। 80. এটা বিশ্ব-পালনকর্তার পক্ষ থেকে অবতীর্ণ। 81. তবুও কি তোমরা এই বাণীর প্রতি শৈথিল্য পদর্শন করবে? 82. এবং একে মিথ্যা বলাকেই তোমরা তোমাদের ভূমিকায় পরিণত করবে? 83. অতঃপর যখন কারও প্রাণ কন্ঠাগত হয়। 84. এবং তোমরা তাকিয়ে থাক, 85. তখন আমি তোমাদের অপেক্ষা তার অধিক নিকটে থাকি; কিন্তু তোমরা দেখ না। 86. যদি তোমাদের হিসাব- কিতাব না হওয়াই ঠিক হয়, 87. তবে তোমরা এই আত্মাকে ফিরাও না কেন, যদি তোমরা সত্যবাদী হও ? 88. যদি সে নৈকট্যশীলদের একজন হয়; 89. তবে তার জন্যে আছে সুখ, উত্তম রিযিক এবং নেয়ামতে ভরা উদ্যান। 90. আর যদি সে ডান পার্শ্বস্থদের একজন হয়, 91. তবে তাকে বলা হবেঃ তোমার জন্যে ডানপার্শ্বসস্থদের পক্ষ থেকে সালাম। 92. আর যদি সে পথভ্রষ্ট মিথ্যারোপকারীদের একজন হয়, 93. তবে তার আপ্যায়ন হবে উত্তপ্ত পানি দ্বারা। 94. এবং সে নিক্ষিপ্ত হবে অগ্নিতে। 95. এটা ধ্রুব সত্য। 96. অতএব, আপনি আপনার মহান পালনকর্তার নামে পবিত্রতা ঘোষণা করুন। *********

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Cha